ইয়াওমুল আহাদ (রবিবার), ২৫ অক্টোবর ২০২০

ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামদের নিয়ে কটূক্তি করায় আইনি নোটিশ

ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামদের নিয়ে কটূক্তি করায় আইনি নোটিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফেসবুকে হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনাদের নিয়ে কটূক্তি করায় ‘আমরা মানুষ ফাউন্ডেশন’ নামক একটি সংগঠনের সভাপতিকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন মুসলমানদের অধিকার বিষয়ক সংস্থা ‘মুসলিম রাইটস ফাউন্ডেশন’র সাধারণ সম্পাদক আল্লামা মুহম্মদ মাহবুব আলম। সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবি এডভোকেট মুহম্মদ মাসুদুজ্জামান বৃহস্পতিবার নোটিশটি প্রেরণ করেন।

নোটিশে বলা হয়, গত ২২ সেপ্টেম্বর ‘আমরা মানুষ ফাউন্ডেশন’ নামক সংস্থাটির সভাপতি ফেসবুকে কিছু কুকুরদের খাওয়ানোর ছবি পোষ্ট করে সেই পোষ্টের ক্যাপশনে লিখে, ফেরেস্তাদের সাথে ফেরেস্তারাই থাকে।’ (নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক!) এ ধরণের বক্তব্য সুস্পষ্টভাবে হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামগণকে কটূক্তি করার সামিল। কারণ হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামগণের ওপর বিশ্বাস পবিত্র দ্বীন ইসলামে ঈমানের অন্যতম প্রধান শর্ত। দ্বীন ইসলামী বিশ্বাস অনুসারে, হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামগণ মহান আল্লাহ পাকের পবিত্র সৃষ্টি। হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামগণকে মহান আল্লাহ পাক তিনি নূর দিয়ে সৃষ্টি করেছেন। হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামগণ মহান আল্লাহ পাক উনার কোনো নির্দেশই অমান্য করেন না এবং মহান আল্লাহ পাক তিনি উনাদেরকে যে দায়িত্বে নিয়োজিত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন, উনারা তা যথার্থরূপে পালনরত। অন্যদিকে, পবিত্র দ্বীন ইসলামে কুকুরের ব্যাপারে নির্দেশনা এই যে, শখ করে ঘরে কুকুর রাখা নিষেধ। পবিত্র হাদীছ শরীফে বলা হয়েছে, যে ঘরে কুকুর অথবা [প্রাণীর] ছবি আছে, সে ঘরে হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামগণ প্রবেশ করেন না। [সহীহ বুখারী : ৩৩২২] অথচ দায়ী ব্যক্তি তার ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডিতে কুকুরকে “ফেরেস্তা” হিসেবে উল্লেখ করেছে। আর হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামগণকে নিয়ে এমন আপত্তিকর মন্তব্য পবিত্র দ্বীন ইসলামের প্রতি চরম অবমাননা এবং বাংলাদেশে প্রচলিত আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

আরো পড়ুনঃ রাস্তায় কুকুরের উপদ্রব থেকে সুরক্ষার দাবিতে আইনি নোটিশ

নোটিশে আরো বলা হয়েছে, সাংবিধানিকভাবে যেহেতু বাংলাদেশের রাষ্ট্রদ্বীন ইসলাম, সুতরাং ইসলামী বিশ্বাসসমূহ রাষ্ট্র দ্বারা সুরক্ষিত। সংগঠনটির সভাপতি বাংলাদেশের মুসলিমদের একটি দ্বীনি বিশ্বাসকে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করেছে। এ ধরণের মন্তব্য মুসলিমদের পবিত্র দ্বীনের প্রতি অসম্মানজনক, অবমাননাকর ও বেআইনি।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮-এর ২৮ (১) ধারায় বলা হয়েছে: যদি কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী ইচ্ছাকৃতভাবে বা জ্ঞাতসারে ধর্মীয় মূল্যবোধ বা অনুভূতিতে আঘাত করিবার বা উস্কানি প্রদানের অভিপ্রায়ে ওয়েবসাইট বা অন্য কোনো ইলেকট্রনিক বিন্যাসে এমন কিছু প্রকাশ বা প্রচার করেন বা করান, যাহা ধর্মীয় অনুভূতি বা ধর্মীয় মূল্যবোধের উপর আঘাত করে, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ। ওই আইনের ২৮(২) ধারায় বলা হয়েছে: যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর কারাদ-ে, বা অনধিক ১০ (দশ) লক্ষ টাকা অর্থদ-ে, বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হইবেন।

আরো পড়ুনঃ বেওয়ারিশ কুকুর নিধনের দাবিতে মানববন্ধন

নোটিশে এহেন দ্বীন ইসলামবিরোধী পোষ্ট দেয়ার জন্য আমরা মানুষ ফাউন্ডেশনের সভাপতিকে এই নোটিশ পাওয়ার ৩ দিনের মধ্যে পবিত্র হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালামগণকে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা প্রার্থনার আহবান জানানো হয়েছে। অন্যথায় শক্ত আইনি পদক্ষেপের হুঁশিয়ারী প্রদান করা হয়েছে।

Facebook Comments