ইয়াওমুল জুমুআ (শুক্রবার), ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

গাছে ধরে রুটি!

গাছে ধরে রুটি!

নিউজ ডেস্ক: আছে রুটির গাছ। অবাক করা কথা হলেও এটিই সত্যি! আফ্রিকার গাছ বাওবাব। এটি রয়েছে হর্টিকালচারাল সোসাইটিতে। সাদা ফুল থেকে যখন ফল হয়, তখন মনে হয়, মরা ইঁদুর ঝুলে রয়েছে গাছটিতে। এর জন্যই এর আরো একটি নাম ডেড র‌্যাট ট্রি। আপাত রুক্ষ জমিতে পাতাহীন অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকে গাছগুলো। তখন দেখে মনে হয় যেন কেউ শিকড় উপড়ে উল্টো করে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। তাই একে আপসাইড ডাউন ট্রি নামেও ডাকা হয়ে থাকে।

এই ফল কাঁচা ও পাকা দুই ভাবেই খাওয়া যায়। কাঁচা অবস্থায় এর ফল চাক চাক করে কেটে তাওয়ায় ভেজে বা সেঁকে রুটির মত খাওয়া যায়। তাছাড়া চিনি ও গুড় দিয়েও উপাদেয় খাবার তৈরি করা যায়। পাকা ফলের স্বাদ কলার মত। এমনকি জ্যাম, জেলি বানিয়েও খাওয়া যায় এই ফল। কিছু এলাকায় এটি দিয়ে ক্যান্ডি, চিপস এমনকি মিষ্টি আচারও তৈরি করা হয়ে থাকে। এর পাতা পুড়িয়ে ছাই দিয়ে চর্ম রোগের চিকিৎসা হয়।

ইংরেজিতে এটিকে ব্রেডফ্রুট বলা হয়। এই ফল দিয়ে তৈরি রুটি কেবল স্বাদের জন্যই প্রশংসিত নয়। পাশাপাশি অনেকগুলো বি এবং ই ভিটামিনযুক্ত চিকিত্সায় ও ডায়েটরি পণ্য হিসাবেও এর ব্যবহার হয়। তাছাড়া ব্রেডফ্রুটের অপরিষ্কার ফলগুলোও খাওয়া হয়।

আদি নিবাস তাইওয়ান হলেও এটি নিউজিল্যান্ডে বেশি উৎপাদিত হয়। বীজ সহ ও বীজ ছাড়া এই প্রজাতির উৎপাদন হয়। আমাদের দেশে পাহাড়ি এলাকা ছাড়া গাজীপুর, সাভার, নরসিংদী, কুমিল্লা ও ময়মনসিংহে এর চাষের সম্ভাবনা বেশি।

Facebook Comments