ইয়াওমুস ছুলাছা (মঙ্গলবার), ২৪ নভেম্বর ২০২০

দ্বীন ইসলাম নিয়ে কটূক্তি, হিন্দু যুবক গ্রেপ্তার

দ্বীন ইসলাম নিয়ে কটূক্তি, হিন্দু যুবক গ্রেপ্তার

সিলেট সংবাদদাতা: সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় দ্বীন ইসলাম ও পবিত্র কুরআন শরীফ নিয়ে কটূক্তি করায় রাধাকান্ত নামের এক হিন্দু যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে।

বুধবার ভোররাতে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাসার বদরুজ্জামান। তিনি জানান, রুবেল মিয়া নামে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী বাদী হয়ে রাধাকান্তের বিরুদ্ধে ফেঞ্চুগঞ্জ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করেছেন। এটি ফেঞ্চুগঞ্জ থানায় দায়ের করা প্রথম ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা।

গ্রেপ্তার রাধাকান্ত উপজেলার ঘিলাছড়া ইউনিয়নের নিজ ঘিলাছড়া (মোকামবাজার) গ্রামের রায় মনি বিশ্বাসের ছেলে। রাধাকান্ত পেশায় রাজমিস্ত্রী।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার বিকেলে একই গ্রামের রুবেল মিয়া তার ফেসবুকে রাধাকান্ত বিশ্বাসের ‘হিন্দু বিবাহের শক্তি’ শিরোনামে ছবিযুক্ত একটি পোস্ট দেখতে পান।

রাধাকান্তের ইসলামবিদ্বেষী পোস্টটি নিয়ে স্থানীয় মুসলিমদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এদিন সন্ধ্যার পর থেকে স্থানীয় মোকামবাজারে জড়ো হতে থাকে প্রতিবাদী সচেতন মুসলিমরা। খবর পেয়ে মোকামবাজারে উপস্থিত হন ঘিলাছড়া ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুল মছব্বির ও ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ওসি আবুল বাসার বদরুজ্জামানসহ একদল পুলিশ।

এসময় কটূক্তিকারীকে দ্রুত আটক করে আইনের আওতায় নেওয়া হবে বলে পুলিশ আশ্বাসে দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পরে গতকাল দিবাগত রাতে রাধাকান্তকে আটক করে ফেঞ্চুগঞ্জ থানা পুলিশ।

মামলার বাদী রুবেল মিয়া বলেন, দ্বীন ইসলাম ও পবিত্র কোরআন শরীফ নিয়ে কটূক্তি করায় ইমানি দায়িত্ববোধ থেকে থানায় অভিযোগ করেছি। যেহেতু কটূক্তিকারী আইনের আওতায় সেহেতু এ নিয়ে এলাকায় যাতে আইনশৃঙ্খলার অবনতি না হয়, সে বিষয়টি নিয়ে মোকামবাজার সংলগ্ন স্কুল মাঠে এক অবহিতকরণ সভার আয়োজন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ওসি আবুল বাসার বদরুজ্জামান বলেন, চরম উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে দুই ঘণ্টার মধ্যে কটূক্তিকারী রাধাকান্তকে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

Facebook Comments