ইয়াওমুল খামিছ (বৃহস্পতিবার), ২৯ অক্টোবর ২০২০

জাপান গার্ডেন সিটিতে পবিত্র কুরবানিতে নিষেধাজ্ঞা দেয়ায় আইনি নোটিশ

জাপান গার্ডেন সিটিতে আইনি নোটিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাপান গার্ডেন সিটিতে কুরবানির পশু প্রবেশ ও কুরবানি করতে নিষেধাজ্ঞামূলক সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নেয়ার দাবি জানিয়ে জাপান গার্ডের সিটি ফ্ল্যাট মালিক কল্যাণ সমিতি কর্তৃপক্ষকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। জাপান গার্ডেন সিটির বাসিন্দা মুহম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুনের পক্ষ থেকে এই আইনী নোটিশটি পাঠানো হয়েছে জজ কোর্টের বিশিষ্ট আইনজীবি এ্যাডভোকেট মুহম্মদ মেজবাহ উদ্দিন তার পক্ষ থেকে এই নোটিশটি প্রেরণ করেন।

নোটিশে বলা হয়, গত ৫ জুলাই ২০২০ তারিখে জাপান গার্ডেন সিটি ফ্ল্যাট মালিক কল্যাণ সমিতির পক্ষ থেকে প্রদত্ত এক নোটিশে বলা সেখানে কুরবানির কোনো পশু প্রবেশের বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়। পাশাপাশি কুরবানি সিটির বাইরে গিয়ে করতে বলা হয়েছে। যাতে করে মুসলমানদের একটি গুরুত্বপূর্ণ ওয়াজিব ইবাদতে বাধার সৃষ্টি করা হয়েছে।

নোটিশদাতা বলেন, পবিত্র ঈদুল আযহা মুসলমানগণের একটি দ্বীনি উৎসব এবং পশু কুরবানী একটি দ্বীনি ইবাদাত। পবিত্র ঈদুল আযহায় সাধ্যমতো পশু কুরবানী করা প্রত্যেক সামর্থ্যবান মুসলিমগণের একটি ওয়াজিব (বাধ্যতামূলক) আমল। জাপান গার্ডেন সিটি মালিক ফ্ল্যাট মালিক কল্যাণ সমিতি বাংলাদেশে প্রচলিত আইনের অধীনে নিবন্ধিত একটি সোসাইটি। নিবন্ধনের শর্ত অনুযায়ী জাপান গার্ডেন সিটি মালিক ফ্ল্যাট মালিক কল্যাণ সমিতি অবশ্যই বাংলাদেশে প্রচলিত আইন মেনে চলতে বাধ্য। কিন্তু কথাকথিত করোনার সাথে পশু কুরবানির কোনো সম্পর্ক না থাকার পরও এর অজুহাত দিয়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সেখানে পশু কুরবানিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। অথচ, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কিংবা ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন আসন্ন ঈদুল আযহায় পশু কুরবানী করা কিংবা হাউজিং কমপ্লেক্সে পশু প্রবেশ করানোর ক্ষেত্রে কোনো নিষেধাজ্ঞা জারি করেনি। বরং ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন পশু কুরবানীর ব্যবস্থা নিশ্চিত করেছে। এমন অবস্থায় জাপান গার্ডেন সিটি মালিক ফ্ল্যাট মালিক কল্যাণ সমিতির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির কোনো আইনগত এখতিয়ারই নেই যে, তারা জাপান গার্ডেন সিটিতে কুরবানীর পশু প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে একটি বেআইনি নির্দেশনা জারি করবে।

নোটিশে আরো বলা হয়, সাংবিধানিকভাবে বাংলাদেশের রাষ্ট্র-দ্বীন ইসলাম, সুতরাং দ্বীন ইসলামী আক্বীদাসমূহ রাষ্ট্র দ্বারা সুরক্ষিত। বাংলাদেশের সংবিধানের ৪১ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, প্রত্যেক নাগরিকের নিজ নিজ দ্বীন পালনের অধিকার রয়েছে। সুতরাং পবিত্র ঈদুল আযহায় পশু কুরবানী করা বাংলাদেশের প্রত্যেক মুসলমানের সাংবিধানিক অধিকার। অথচ জাপান গার্ডেন সিটিতে বসবাসরত মুসলমানগণকে তাদের সাংবিধানিক অধিকার পালনে বাধা সৃষ্টি করা হচ্ছে। এর ফলে উক্ত আবাসিক এলাকার বাসিন্দা তথা নোটিশদাতার দ্বীনি অনুভূতিতে আঘাত দিয়েছে। যা বাংলাদেশ দ-বিধি, ১৮৬০-এর ২৯৫(ক) ধারা মোতাবেক একটি ফৌজদারী অপরাধ।

নোটিশদাতা আগামী ৩ দিনের মধ্যে জাপান গার্ডেন সিটিতে কুরবানির উপর সকল নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার এবং এই নোটিশের জন্য ক্ষমা চাওয়ার আহবান জানিয়েছে। অনথ্যায় তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলা হয়েছে নোটিশে।

Facebook Comments