ইয়াওমুস সাবত (শনিবার), ১১ জুলাই ২০২০

পবিত্র হজ্ব পালনে অন্যান্য দেশকে নিষিদ্ধ করায় সৌদি সরকারকে ১শত বিশিষ্ট নাগরিকের প্রতিবাদলিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনার অজুহাত দেখিয়ে চলতি বছর সৌদি আরবের বাইরের মুসলিমদের পবিত্র হজে অংশগ্রহণ নিষিদ্ধ করায় সৌদি সরকারের কাছে প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশের বিশিষ্ট ১শত নাগরিক। গত রোববার (২৮ জুন) ঢাকাস্থ সৌদি দূতাবাসে একটি স্মারকলিপি হস্তান্তর ও ডাকযোগে সৌদি সরকারের হজ্ব ও উমরা মন্ত্রণালয়ে একটি প্রতিবাদলিপি প্রেরণের মাধ্যমে এই প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়েছে, পবিত্র হজ্ব সামর্থ্যবান মুসলিমদের জন্য একটি ফরজ ইবাদত এবং পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার অন্যতম একটি স্তম্ভ। সৌদি কর্তৃপক্ষ এই বছর করোনার অজুহাত দিয়ে সৌদি আরবে অবস্থানরত মাত্র হাজারখানেক মুসলিমকে হজ্ব পালনের সুযোগ দিবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অথচ সহীহ বুখারী শরীফ ও সহীহ মুসলিম শরীফে উদ্ধৃত হাদীস শরীফ উনার মধ্যে রয়েছে, হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বলেছেন, ছোঁয়াচে রোগ বলে কিছু নেই। যেহেতু পবিত্র দ্বীন ইসলাম, উনার মধ্যে কোনো রোগকে ছোঁয়াচে রোগ বলে চিন্তা করতে নিষেধ করা হয়েছে, সুতরাং তথাকথিত করোনার অজুহাতে সুস্থ ও সামর্থ্যবান মুসলিমদের পবিত্র হজ্ব পালনের সুযোগ বন্ধ করা সম্পূর্ণই দ্বীন ইসলামপরিপন্থী। এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে সৌদি সরকার এই বছর মুসলিমদেরকে একটি ফরজ ইবাদত পালনে বাধা দিচ্ছে। পবিত্র হারামাইন শরীফের খাদেম হিসেবে সৌদি কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব হলো হাজীগণকে হজ্ব পালনে সহযোগিতা করা। সুস্থ ও সামর্থ্যবান মুসলিমদেরকে পবিত্র হজ্ব পালনে বাধা দেওয়ার কোনো অধিকার সৌদি সরকারের নেই।

স্মারকলিপিতে বাংলাদেশের মুসলিমদের পক্ষ থেকে সৌদি সরকারের উক্ত সিদ্ধান্তে তীব্র নিন্দা জানানো হয় এবং অবিলম্বে উক্ত সিদ্ধান্ত বাতিল করে বিশ্বের সকল সামর্থ্যবান মুসলিমের জন্য হজের সুযোগ দেওয়ার আহবান জানানো হয়।

Facebook Comments