ইয়াওমুস সাবত (শনিবার), ১১ জুলাই ২০২০

কাঁচামরিচ এখন ২০০ টাকা

কাঁচামরিচ এখন ২০০ টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: হঠাৎ করেই রাজধানীর বাজারগুলোতে বেড়েছে কাঁচামরিচের দাম। সপ্তাহের ব্যবধানে কাঁচামরিচের দাম বেড়ে চারগুণ হয়েছে। এমনকি কোনো কোনো বাজারে কাঁচামরিচের কেজি ২০০ টাকা ছুঁয়েছে।

কারওয়ান বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রতিকেজি কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকায়, যা কিছুদিন আগে ছিল ২০ থেকে ৩০ টাকা। অর্থাৎ পাইকারিতে কাঁচমরিচের দাম বেড়ে চারগুণ হয়েছে।

রামপুরা বাজারে গিয়ে দেখা যায়, কাঁচামরিচের পোয়া (২৫০ গ্রাম) বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা। অর্থাৎ প্রতিকেজি কাঁচামরিচের দাম পড়ছে ১৬০-২০০ টাকা। একই দামে বিক্রি হতে দেখা গেছে মালিবাগ হাজীপাড়ায়। খিলগাঁও তালতলা বাজারে কাঁচামরিচের পোয়া ৪০ থেকে ৫০ টাকা বিক্রি হতে দেখা গেছে। এমনকি ভ্যানে বিক্রি করা ব্যবসায়ীরাও কাঁচামরিচের পোয়া ৪০ থেকে ৫০ টাকা বিক্রি করছেন।

রামপুরায় ভ্যানে কাঁচামরিচ বিক্রি করা রাজু বলেন, কিছুদিন আগেও ভ্যানে বস্তা বস্তা কাঁচামরিচ বিক্রি করেছি। এখন আর সেই পরিস্থিতি নেই। যে কাঁচামরিচের কেজি ৩০ থেকে ৪০ টাকা বিক্রি করেছি এখন তা এক পোয়া ৪০ টাকা বিক্রি করতে হচ্ছে। পাইকারিতে কাঁচামরিচের দাম অস্বাভাবিক বেড়ে গেছে। খিলগাঁওয়ে ৫০ টাকা পোয়া কাঁচামরিচ বিক্রি করা হারুন বলেন, পাইকারিতে দাম যখন কম ছিল তখন আমরাও কাঁচামরিচের পোয়া ১৫ থেকে ২০ টাকা বিক্রি করেছি। কিন্তু এখন আর সেই দিন নেই। ৫০ টাকার নিচে এক পোয়া কাঁচামরিচ বিক্রি করার উপায় নেই।

কারওয়ান বাজারে ৮০ থেকে ১০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। তাহলে আপনারা এক পোয়ার দাম ৫০ টাকা রাখছেন কেন? এমন প্রশ্ন করলে এই ব্যবসায়ী বলেন, কারওয়ান বাজারে সব ধরনের কাঁচামরিচের কেজি ৮০ টাকা না। মরিচের মধ্যে ভালোমন্দ আছে। আমাদের মরিচ ভালো মানের। তাছাড়া পাইকারি ও খুচরা বাজারে দামে কিছু পার্থক্য থাকবে-এটাই স্বাভাবিক।
মালিবাগ হাজীপাড়ার ব্যবসায়ী আলাল বলেন, কিছুদিন আগেও এক পোয়া কাঁচামরিচ ১৫ টাকা বিক্রি করেছি। সেই মরিচ এখন ৪০ টাকা বিক্রি করতে হচ্ছে। এরপরও আড়তে মরিচ সেইভাবে পাওয়া যাচ্ছে না।

রামপুরা বাজারে সবজি কিনতে আসা সাইফুল ইসলাম বলেন, গত সপ্তাহেও ব্যবসায়ীরা ডেকে ডেকে আধাকেজি কাঁচামরিচ ৩০ টাকা বিক্রি করেছে। কিন্তু আজ এক পোয়া ভালো মানের কাঁচামরিচ কোথাও ৫০ টাকার নিচে পেলাম না।

Facebook Comments