ইয়াওমুস সাবত (শনিবার), ১১ জুলাই ২০২০

ওয়াসার পানির বাড়তি দামে নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপিলের শুনানি ৩০ জুন

পানির বাড়তি দামে নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপিলের শুনানি

নিউজ ডেস্ক : পানির দাম বাড়ানোর ওপর আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত হাইকোর্টের দেয়া নিষেধাজ্ঞার আদেশ স্থগিত চেয়ে ওয়াসা কর্তৃপক্ষের আপিল আবেদনের ওপর শুনানির জন্য ৩০ জুন দিন ঠিক করেছেন আপিল বিভাগের চেম্বারজজ আদালত।

মঙ্গলবার (২৩ জুন) আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নূরুজ্জামানের ভার্চুয়াল চেম্বারজজ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ ওয়াসার পক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম। রিট আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ব্যারিস্টার অনীক আর হক।

অনীক আর হক সাংবাদিকদের বলেন, ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে ওয়াসার করা আপিল আবেদনের বিষয়ে শুনানির জন্য আদালত পরবর্তী দিন আগামী ৩০ জুন ঠিক করেছেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, আবেদনের ওপর আজকেও শুনানি হয়েছে। ৩০ জুন আবারও শুনানি হবে।

এর আগে এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে ২২ জুন ওয়াসার বাড়তি দামের ওপর ১০ আগস্ট পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা দেন হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চ। ওই আদেশ স্থগিত চেয়ে ওই দিনই আপিল বিভাগের চেম্বারজজ আদালতে আবেদন করে ওয়াসা কর্তৃপক্ষ।

গত ১ এপ্রিল থেকে কার্যকর হওয়া ২৫ শতাংশ বাড়ানো ওই দামের ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে ১৫ জুন ওই আবেদন করেন আইনজীবী মো. তানভীর আহমেদ।

আবেদনে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব, আইন সচিব, ঢাকা ওয়াসা, পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়।

স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পানির দাম বাড়িয়ে একটি অফিস আদেশ জারি করা হয়। এতে বলা হয়, আবাসিকে ঢাকা ওয়াসার সরবরাহ করা প্রতি ১ হাজার লিটার পানির দাম ১১ টাকা ৫৭ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ১৪ টাকা ৪৬ পয়সা করা হয়েছে। এ ছাড়া বাণিজ্যিক সংযোগে প্রতি হাজার লিটার পানির দাম ৩৭ টাকা ৪ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৪০ টাকা করা হয়েছে।

গত ১ এপ্রিল থেকে ঢাকা ওয়াসা আবাসিক গ্রাহকদের পানির বিল ২৫ শতাংশ বাড়িয়েছে। বাণিজ্যিক গ্রাহকের বিল বাড়ানো হয়েছে প্রায় ৮ শতাংশ। নতুন মূল্যহার অনুযায়ী প্রতি হাজার লিটার পানির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪ টাকা ৪৬ পয়সা; যা আগে ছিল ১১ টাকা ৫৭ পয়সা। বাণিজ্যিকে প্রতি হাজার লিটারে ৩৭ টাকা ৪ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। সর্বশেষ গত বছরের সেপ্টেম্বরে পানির মূল্য ৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছিল।

Facebook Comments