ইয়াওমুস ছুলাছা (মঙ্গলবার), ২৪ নভেম্বর ২০২০

ইন্টারনেট ও মোবাইল গ্রাহক কমেছে ৪৪ লাখ

ইন্টারনেট ও মোবাইল গ্রাহক কমেছে ৪৪ লাখ

নিজস্ব প্রতিবেদক:  লকডাউনে মানুষের ঘরে থাকার সময়ে মোবাইল ও ইন্টারনেট গ্রাহক প্রথম মাসে বাড়লেও এপ্রিলের শেষে কমেছে দু’টিই। এপ্রিল শেষে দেশে মোট মোবাইল গ্রাহক ১৬ কোটি ২৯ লাখ ২০ হাজার এবং ইন্টারনেট গ্রাহক ১০ কোটি ১১ লাখ ৮৬ হাজার বলে জানিয়েছে বিটিআরসি।

মার্চের সঙ্গে তুলনা করলে দেখা যায়, এপ্রিল শেষে মোবাইল গ্রাহক কমেছে ২৪ লাখ ১৭ হাজার এবং ইন্টারনেট গ্রাহক কমেছে ২০ লাখ ৬৭ হাজার। তবে ইন্টারনেট ব্যবহারের পরিমাণ বেড়েছে।

দেশের বর্তমান পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে গ্রাম ও শহরে অবস্থানের কারণে বিভিন্ন অপারেটরের ভিন্ন ভিন্ন সিম ব্যবহার কমায় মোবাইল ও ইন্টারনেট গ্রাহক কমেছে বলে মনে করছে বিটিআরসি।

মোবাইল গ্রাহকের মধ্যে গ্রামীণফোনের ৭ কোটি ৪৩ লাখ ৬১ হাজার, রবি’র ৪ কোটি ৮৮ লাখ ৪৩ হাজার, বাংলালিংকের ৩ কোটি ৪৮ লাভ ৭৬ হাজার এবং টেলিটকের ৪৮ লাখ ৪০ হাজার গ্রাহক রয়েছেন। আর মোট ইন্টারনেট গ্রাহকের মধ্যে মোবাইল ইন্টারনেট গ্রাহক ৯ কোটি ৩১ লাখ ১ হাজার, ওয়াইম্যাক্স ২ হাজার এবং আইএসপি ও পিএসটিএন গ্রাহক সংখ্যা ৮ লাখ ৮৪ হাজার।
১৭ মার্চ থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। মানুষের ঘরে থাকার সময়ে অনলাইনভিত্তিক কাজের কারণে ইন্টারনেট গ্রাহক বেড়ে যায় ৩০ লাখের বেশি।

মার্চ মাস শেষে দেশে ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা দাঁড়ায় ১০ কোটি ৩২ লাখ ৫৩ হাজার। মোট ইন্টারনেট গ্রাহকদের মধ্যে মোবাইল ইন্টারনেট গ্রাহক ৯ কোটি ৫১ লাখ ৬৮ হাজার। ওয়াইম্যাক্স ২ হাজার এবং আইএসপি গ্রাহক আট হাজার ৮৪।

গ্রাহক কমে যাওয়ার বিষয়ে বিটিআরসি’র সিনিয়র সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন খান বলেন, দেশের বর্তমান পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে গ্রাহকের নতুন সংযোগ ক্রয়ের প্রবণতা কমেছে। যা সাময়িক সময়ের জন্য হতে পারে। তাছাড়া গ্রাম ও শহরে অবস্থানের কারণে বিভিন্ন অপারেটরের ভিন্ন ভিন্ন সিম ব্যবহারও কমেছে।

মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন এমটবের মহাসচিব ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এসএম ফরহাদ গত ১৬ জুন এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, লকডাউনের শুরু থেকে এ পর্যন্ত সারাদেশে ৬ কোটির বেশি মোবাইল গ্রাহক ঢাকা থেকে গ্রামে এবং গ্রামের বাড়ি থেকে ঢাকায় যাতায়াত করেছে। আমাদের হিসাবে ৪০-৪৫ শতাংশ গ্রাহক ঢাকা শহর ছেড়ে চলে যায়।

লক্ষ্য করা গেছে, লকডাউনের কারণে লকডাউনে মানুষ গ্রামের দিকে চলে গেছে। এসময় ভিন্ন অপারেটরের সিম কেনার প্রবণতা কমে যায়। কাস্টমার কেয়ারেও যায়নি। গ্রাহকের ওই নির্দিষ্ট এলাকায় যে অপারেটরের নেটওয়ার্ক ভালো সেটি ব্যবহার করছে। সে কারণে গ্রাহক কম হতে পারে। এই ৪০ শতাংশের হিসাবে দেশের প্রায় সাড়ে ১৬ কোটি গ্রাহকের মধ্যে ছয় কোটির বেশি শহর থেকে গ্রামে মুভমেন্ট করেছে।

Facebook Comments