ইয়াওমুল ইসনাইন (সোমবার), ২৫ মে ২০২০

করোনা ওষুধের প্রথম ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল ব্যর্থ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনার ওষুধ বা টিকা উদ্ভাবনের চেষ্টায় উঠেপড়ে লেগেছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের চিকিৎসা বিজ্ঞানী ও গবেষকরা। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী প্রায় একশ গবেষণা চলছে এর চিকিৎসা উদ্ভাবনে। অবশ্য বেশিরভাগ দেশে গবেষণা এখনও ল্যাব টেস্টের পর্যায়েই আছে। কিন্তু কিছু কিছু দেশ অনেক এগিয়ে গেছে। এই মুহূর্তে চীন, যুক্তরাজ্যসহ অন্তত চারটি দেশ মানব শরীরে করোনার সম্ভাব্য ওষুধ প্রয়োগ করে (ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল) গবেষণা চালাচ্ছে।

এরই মাঝে চীনে ‘রেমডেসিভির’ নামে ব্যাপক আশা জাগানিয়া সম্ভাব্য একটি করোনা ওষুধের প্রথম ক্লিনিক্যাল টেস্ট ব্যর্থ হয়েছে বলে খবর এসেছে। শুক্রবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ তথ্য জানায়।

অসাবধানতাবশত প্রকাশ পাওয়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) এক খসড়া নথিতে বলা হয়, চীনা ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে ‘রেমডেসিভির’ সফল হয়নি।

হু’র বরাতে খবরে বলা হয়, সম্প্রতি ২৩৭ করোনা রোগীর মধ্যে দৈবচয়নের মাধ্যমে কাউকে কাউকে রেমডিসিভির ওষুধটি দেয়া হয়। বিপরীতে বাকি রোগীদের দেয়া হয় উপসর্গ অনুসারে সাধারণ চিকিৎসা। এক মাস পর ফলাফলে দেখা যায়, রেমডেসিভির দেয়া রোগীদের মধ্যে ১৩.৯ শতাংশ মারা গেছে। অন্যদিকে সাধারণ চিকিৎসা দেয়া রোগীদের মধ্যে মারা গেছে ১২.৮ শতাংশ।

বিভিন্ন রকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কারণে এরপরপরই রেমডেসিভির ওই ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল বন্ধ করে দেয়া হয়।

চীনের এ ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের নেপথ্যে থাকা মার্কিন বায়োফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থা ‘গিলিয়াড সায়েন্সেস’ অবশ্য অসাবধানতাবশত প্রাথমিক পর্যায়ের এ ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ফলাফল প্রকাশে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিন্দা জানিয়েছে। এটি গবেষণাটিকে ভুল বুঝতে ও ভুল খাতে প্রবাহিত করতে পারে বলে জানিয়েছে তারা।

Facebook Comments