ইয়াওমুল খামিছ (বৃহস্পতিবার), ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সাইবার ট্রাইব্যুনালের পৃথক এজলাস

সাইবার ট্রাইব্যুনালের পৃথক এজলাস

নিজস্ব প্রতিবেদক : ছয় বছর তিন মাস ২০ দিন পর পৃথক এজলাস পেলেন বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালত। পৃথক এজলাসে এখন প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বিচারিক কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের (পুরাতন) ভবনের ছষ্ঠ তলায় সাইবার ট্রাইব্যুনালের এজলাস ও সেরেস্তার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এজলাস ও সেরেস্তার কার্যক্রম শুরুর আগে সকালে মিলাদের আয়োজন করা হয়।

মিলাতে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এম হেলাল উদ্দিন, মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ, সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস সামছ জুগলুল হোসেন, ঢাকার বিশেষ জজ-৩ এর বিচারক সৈয়দ দিলজার হোসেনসহ অনেক বিচারক উপস্থিত ছিলেন।

২০১৩ সালের ২৮ অক্টোবর সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারিক কার্যক্রম শুরু হয়। শুরু থেকে ঢাকার বিশেষ জজ-১ এর এজলাসে বিচারিক কার্যক্রম পরিচালনা করতেন। এরপর বিশেষ জজ-৪ এ বিচারিক কার্যক্রম পরিচালনা করতেন। বিশেষ জজ আদালতের এজলাসের বিচারিক কার্যক্রম শেষ হওয়ার পর সাইবার ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম পরিচালিত হতো। আজ (রোববার) তারা নতুন এজলাসে বিচারিক কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

সাইবার ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁশলি (পিপি) নজরুল ইসলাম শামীম বলেন, আজ (রোববার) আমরা নতুন এজলাসে বিচারিক কার্যক্রম শুরু করেছি। অনেক দিন পর পৃথক এজলাস পেয়ে আমরা অনেক খুশি। তবে এজলাসে পর্যাপ্ত ফার্নিচার নেই। পিপির বসার স্থানও নেই। সরকারের কাছে আমাদের আবেদন ফার্নিচার ও পিপির বসার স্থানের যেন ব্যবস্থা করে দেন।

ট্রাইব্যুনালের পেশকার শামীম আল মামুন বলেন, আলহামদুলিল্লাহ, দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর আজ আমরা পৃথক এজলাস পেয়েছি। আজ সকালে মিলাদের মাধ্যমে আমাদের এজলাসের বিচারিক কার্যক্রম শুরু করেছি। এতে আমরা অনেক খুশি।

Facebook Comments