ইয়াওমুল ইসনাইন (সোমবার), ২৭ জানুয়ারি ২০২০

১ভূমিকম্পে পুয়ের্তো রিকোর অর্ধেকেরও বেশি বাসিন্দা বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভূমিকম্পে বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ক্যারিবীয় দ্বীপ পুয়ের্তো রিকোর ১৫ লাখের বেশি বাসিন্দা অন্ধকারে দিন কাটাচ্ছে। এ সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রের আওতাধীন এ দ্বীপটির মোট জনগোষ্ঠীর অর্ধেকের বেশি।
কয়েকশ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হওয়ার পর পরাঘাতে আরও ধ্বংসযজ্ঞের আশঙ্কায় অনেকেই ঘরের বাইরে রাত কাটাচ্ছে বলেও জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
মঙ্গলবার পুয়ের্তো রিকোয় ১০২ বছরের মধ্যে আঘাত হানা সবচেয়ে ভয়াবহ এ ভূমিকম্পে ব্যাপক হতাহত হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত কিংবা ধ্বংস হয়েছে প্রায় ৩০০টি বাড়ি। দ্বীপটিতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।
৬ দশমিক ৪ মাত্রার ভূমিকম্প ও পরে ৫ দশমিক ৬ মাত্রার একটি পরাঘাতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে পুয়ের্তো রিকোর দক্ষিণাংশের। ইয়াওকো, গায়ানিকা ও গায়ানিলা শহরগুলোর কয়েক ডজন বাড়ি ধ্বসে পড়েছে।
বেশ কয়েকটি পরাঘাত বুধবার ক্যারিবীয় দ্বীপটিকে কাঁপিয়ে দিয়েছে; একের পর এক কম্পনে ঘরবাড়ি ধ্বসে পড়তে পারে শঙ্কায় হাজার হাজার বাসিন্দা খোলা আকাশ কিংবা গাড়ির ভেতর রাত কাটাচ্ছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো।
“ভয়াবহ, ভয়াবহ, ভয়াবহ। সবকিছু আমাদের উপর পড়ছিল। আপনার আশপাশের এত এত ঘরবাড়ি মাটির সঙ্গে মিশে যাচ্ছে দেখাটা সত্যিই কষ্টকর,” বলেছে ভূমিকম্পের সময় দৌড়ে রাস্তায় বেরিয়ে আসা জোসেফিনা পাচেকো নামে এক ব্যক্তি।
দ্বীপটির সবচেয়ে বড় বিদ্যুৎ সরবরাহকারী প্ল্যান্ট কোস্তা সুর ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সব পুয়ের্তো রিকানকে বিদ্যুৎ সেবা দিতে আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝি লেগে যাবে বলে কর্মকর্তারা অনুমান করছে।

Facebook Comments