ইয়াওমুস ছুলাছা (মঙ্গলবার), ১১ আগস্ট ২০২০

নেপালে অগ্রাধিকারভিত্তিক রফতানির তালিকায় ১১০ বাংলাদেশী পণ্য

নেপালের ৩৩ হেক্টর জমি দখলের অভিযোগ চীনের বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিবেদক: নেপালের সঙ্গে পরিকল্পিত অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তির (পিটিএ) আওয়ায় ১১০টি পণ্য বাছাই করেছে বাংলাদেশের শুল্ক কমিশন (বিটিসি)। এই তালিকায় তৈরি পোশাক, প্লাস্টিক সামগ্রী, পাদুকা, স্টিলের তৈজসপত্রকে সম্ভাবনাময় রফতানিপণ্য হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। রফতানিকারক ও অংশীজনদের সঙ্গে আলোচনা করে শিগগিরই তালিকা চূড়ান্ত করবে কমিশন।

তালিকা তৈরির জন্য বিটিসি গত ২৬ ডিসেম্বর রফতানিকারকসহ অংশীজনদের সঙ্গে একটি বৈঠক করে এবং বাণিজ্য সংগঠনগুলোর কাছ থেকে এ ব্যাপারে মতামত চায়। নেপালের সঙ্গে পিটিএ সই করার জন্য আলোচনার অংশ হিসেবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে তালিকা তৈরি করা হচ্ছে।

গত বছর ২২-২৩ অক্টোবর কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত যুগ্ম সচিব পর্যায়ের বাংলাদেশ-নেপাল বাণিজ্য কারিগরি কমিটির বৈঠকে দুই দেশ পিটিএ সই করার আগ্রহ প্রকাশ করে। সেখানে সিদ্ধান্ত হয় যে বাংলাদেশ নেপালের কাছ থেকে যেসব পণ্যে শুল্ক সুবিধা চায় তার একটি তালিকা তৈরি করে নেপালকে দেবে।

২০১৬ সালে বাংলাদেশ এমন একটি তালিকা তৈরি করে যেখানে ৫৬টি পণ্য ছিলো এবং নেপালের ১০৮টি পণ্যকে বাংলাদেশের বাজারে অগ্রাধিকারমূলক প্রবেশ সুবিধা দেয়ার প্রস্তাব করে। কিন্তু সেই উদ্যোগ সফল হয়নি।

নেপালের এখন উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য ৯৯৮টি পণ্যের একটি স্পর্শকাতর তালিকা রয়েছে। এলডিসি-বহির্ভুত দেশগুলোর জন্য এই তালিকায় রয়েছে ১,০৩৬টি পণ্য। এসব পন্য সাফটা চুক্তিতে সুবিধা পাবে না। পাশাপাশি ভবিষ্যতে নেপালে আরও কি কি পণ্য রতানি করা যায় তাও খতিয়ে দেখছে বাংলাদেশের কমিশন।

Facebook Comments