ইয়াওমুল ইসনাইন (সোমবার), ২৭ জানুয়ারি ২০২০

মুসলিমবিদ্বেষী নাগরিকত্ব আইন ও বাবরি মসজিদ রায় নিয়ে ওআইসি’র উদ্বেগ

মসজিদ রায় নিয়ে ওআইসি’র উদ্বেগ

নিউজ ডেস্ক: ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি)। সম্প্রতি পাস হওয়া সিএএ ও বাবরি মসজিদ মামলার রায়ে মুসলিমদের স্বার্থহানি হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে ওই সংগঠনটি। রোববার সৌদি আরবের জেদ্দায় অনুষ্ঠিত ওআইসির সাধারণ পরিষদের এক অধিবেশনে এ ব্যাপারে উদ্বেগ জানানো হয়।

বাংলাদেশ, আফগানিস্তান ও পাকিস্তান থেকে ভারতে যাওয়া হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, জৈন, পার্সি ও খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব নিশ্চিত করতে এই আইন করে ভারত। গত ১২ ডিসেম্বর রাতে প্রেসিডেন্টের স্বাক্ষরের পরেই আইনে পরিণত হওয়া বিলটি শুরু থেকেই ‘মুসলিমবিরোধী’ আখ্যা পেয়েছে। এর আগে এই আইনকে বৈষম্যমূলক উল্লেখ করে প্রতিবাদ জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

ওআইসির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জাতিসংঘ ও অন্য আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো তাদের চার্টারের মাধ্যমে প্রত্যেকটি দেশে সংখ্যালঘুদের অধিকার সংরক্ষিন করেছে। তার বিপরীতে ভারতের এমন আচরণ কোনওভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

বিবৃতিতে আরও জানানো হয়েছে, ভারতের বর্তমান পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষন করছে সংগঠনটি। অবিলম্বে মুসলিমদের ওপর অত্যাচার বন্ধ করা ও তাদের পবিত্র স্থানগুলো সংরক্ষন করতে ভারতের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

৫৭টি মুসলিম দেশের ওই সংগঠনের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জাতিসংঘ সনদের নীতিমালা, দায়বদ্ধতা, বাধ্যবাধকতাগুলো তুলে ধরে কোনও রকম বৈষম্য ছাড়া ভারতে মুসলমানদের অধিকার নিশ্চিতের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক আইন পালনের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। অন্যথায় ওই অঞ্চলে উত্তেজনা সৃষ্টি এবং এটা গোটা অঞ্চলের শান্তি ও নিরাপত্তার ওপর মারাত্মক প্রভাব ফেলতে পারে।

Facebook Comments