ইয়াওমুল আহাদ (রবিবার), ২৯ মার্চ ২০২০

গ্রামের সড়কেও বসছে সড়কবাতি

গ্রামের সড়কেও বসছে সড়কবাতি

নিজস্ব প্রতিবেদক:  সারাদেশের গ্রামীণ জনপদে বসছে ‘আলোকিত পল্লী সড়কবাতি’। প্রাথমিকভাবে দেশের ১৭ টি উপজেলার ১৩৩ টি ইউনিয়নে ৬ হাজার ১৫০ টি সৌরবিদ্যুৎ চালিত সড়কবাতি স্থাপন করা হবে। পর্যায়ক্রমে সারাদেশের গ্রামে সড়কবাতি স্থাপন করা হবে। এ সোলার সিস্টেমে মোট ব্যয় হবে ৪৭ কোটি ৬১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা। এ উদ্যোগ বাস্তবায়ন করবে পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশন।

পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশনের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৃষিবিদ আমিনুল ইসলাম বলেন, পাইলট প্রকল্প হিসেবে ১৭টি উপজেলাকে বেছে নেওয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সারা বাংলাদেশে এমন উদ্যোগ নেওয়া হবে।

পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশন সূত্র জানায়, যে ১৭টি উপজেলায় এ পাইলট প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে সেগুলো হচ্ছে- রংপুরের পীরগঞ্জ, গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়া, শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ, নরসিংদীর শিবপুর ও রায়পুর, যশোরের মনিরামপুর, মাগুরা সদর ও শ্রীপুর, সাতক্ষীরার তালা, জামালপুরের মেলান্দহ, নেত্রকোণার মোহনগঞ্জ, কুমিল্লার লালমাই, মনোহরগঞ্জ, নাটোরের সিংড়া, বরিশালের আগৈলঝাড়া ও গৌরনদী।

এছাড়া সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলাকে বেছে নেওয়া হয়েছে।

সরকারের নবায়নযোগ্য জ্বালানি নীতিমালায় ২০২০ সালের মধ্যে মোট উৎপাদিত বিদ্যুতের ১০ শতাংশ নবায়নযোগ্য জ্বালানি উৎস থেকে উৎপাদন করার কথা বলা হয়েছে। সরকারের এ লক্ষ্যকে সামনে রেখে ‘আলোকিত পল্লী সড়কবাতি’ শীর্ষক এ প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার।

প্রকল্পটির প্রস্তাবিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৮ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। চলতি বছরের জুলাই থেকে জুন ২০২২ সালে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে।

পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর কার্বন নিঃসরণ হ্রাসকরণ এবং সরকার ঘোষিত ২০২১ সালের মধ্যে সবার জন্য বিদ্যুৎ কার্যক্রম সহায়তা করা হবে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, উপজেলা সদর ও পৌর এলাকা বাদ দিয়ে প্রস্তাবিত প্রকল্পটি প্রত্যন্ত গ্রামে বাস্তবায়নের সুপারিশ করেছে প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি।

Facebook Comments