ইয়াওমুল ইসনাইন (সোমবার), ১৮ নভেম্বর ২০১৯

আফগানিস্তানের কাছে এস-৩০০ মোতায়েন করেছে রাশিয়া

নিউজ ডেস্ক : রাশিয়ার সেনাবাহিনী এই প্রথমবারের মতো আফগানিস্তানের কাছে তাদের সামরিক ঘাঁটিতে এস-৩০০ সারফেস-টু-এয়ার ক্ষেপনাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করেছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এ কথা জানিয়েছে।

সাবেক সোভিয়েত প্রজাতন্ত্র তাজিকিস্তানে রাশিয়ার সামরিক ঘাঁটি রয়েছে, যা আফগান সীমান্তের কাছে। ইসলামী চরমপন্থীদের হামলা মোকাবেলা ও মাদক পাচার প্রতিরোধ করার জন্য এই ঘাঁটি রাখা হয়েছে। অন্যদিকে ন্যাটোর নেতৃত্বাধিন সহায়ক মিশনের অংশ হিসেবে আফগানিস্তানে প্রায় ১৪,০০০ মার্কিন সেনা রয়েছে।

শনিবার রাশিয়ার সেনাবাহিনীর তরফ থেকে বলা হয় যে, রাশিয়ার কেন্দ্রস্থল থেকে ৩০টি উৎক্ষেপক ও অন্যান্য যানসহ একটি ব্যাটালিয়ন তাজিকিস্তানে পাঠানো হয়েছে ঘাঁটিটিকে হামলা থেকে রক্ষার জন্য। বিস্তৃত পরিসরে মধ্য এশিয়া অঞ্চলকে বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার আওতায় নিয়ে আসাও এস-৩০০পিএস মোতায়েনের লক্ষ্য বলে সেনাবাহিনী জানায়।

সেনাবাহিনীর একটি অজ্ঞাত সূত্র আরবিসি নিউজ ওয়েবসাইটকে বলে, আফগান সীমান্তের কাছে এটাই হবে প্রথম এস-৩০০ ক্ষেপনাস্ত্র ব্যবস্থা। আফগানিস্তানে আন্তর্জাতিক জোট বাহিনী সক্রিয়।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রণালয় পরিচালিত জাভেজদা টিভি চ্যানেলে রেল গাড়িতে এস-৩০০ বোঝাই করে তাজিকিস্তানের পথে নিয়ে যাওয়ার ফুটেজ দেখানো হয়।

সাম্প্রতিক সময়ে আফগান সরকার ও তালেবানদের মধ্যে মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে রাশিয়া। ২০০১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধিন বাহিনী তালেবানকে আফগানিস্তানের ক্ষমতা থেকে উৎখাত করে। কিন্তু এখন এই গ্রুপটি অনেক শক্তিশালী। তারা প্রায় প্রতিদিনই আফগানিস্তানের বিভিন্নস্থানে হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। দেশটির প্রায় অর্ধেক অংশের উপরও নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠায় সক্ষম হয়েছে তারা।

দেশটি থেকে সোভিয়েত সৈন্য বিদায়ের কয়েক দশক পর আবারো সেখানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে রাশিয়া। তালেবান ও আফগান রাজনীতিকদের মধ্যে বৈঠকের আয়োজন করেছে মস্কো।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এস-৩০০ ও এস-৪০০ ক্ষেপনাস্ত্র ব্যবস্থা পাঠাচ্ছে রাশিয়া। এসব দেশের মধ্যে রয়েছে চীন, ইরান, মিসর, তুরস্ক ও সিরিয়া।

এস-৩০০ হলো এমন এক বিমান প্রতিরক্ষা ক্ষেপনাস্ত্র ব্যবস্থা যা আকাশ পথে আসা যেকোন হুমকি, হেলিকপ্টার থেকে শুরু করে ক্রুজ মিসাইল ও ব্যালিস্টিক মিসাইল পর্যন্ত ঘায়েল করতে সক্ষম। ১৫০ কিলোমিটার দূরে থাকতেই টার্গেটকে ধ্বংস করতে সক্ষম এর রাডার। প্রতি ৩ সেকেন্ডে একটি করে ক্ষেপনাস্ত্র ছুঁড়তে পারে এস-৩০০।

Facebook Comments