ইয়াওমুল খামিছ (বৃহস্পতিবার), ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সীমান্তে পাকিস্তানের গুলিতে ভারতীয় সেনা নিহত

সিমান্তে পাকিস্তানের গুলিতে ভারতীয় সেনা নিহত

আরএফএন ডেস্ক : জম্মু-কাশ্মীর সীমান্তে পাকিস্তানি বাহিনীর গুলিতে এক ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছে। শুক্রবার দুই দেশের সেনাদের মধ্যে গুলিবিনিময় চলাকালীন এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা নিউজ এইটিনের খবরে বলা হয়, রাজৌরি জেলায় নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে পাকিস্তানি সেনারা শুক্রবার গুলিবর্ষণ করলে রাজীব থাপা নামে একজন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ির বাসিন্দা রাজীব থাপা গোর্খা রাইফেলসের জওয়ান ছিলেন।

ভারতীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছে, শুক্রবার ভোরে রাজৌরির নওশেরা সেক্টরে পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে রাজীব থাপা আহত হলে গুরুতর আহত অবস্থায় সামরিক হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানেই মৃত্যু হয় তার।

হামলার জবাবে ভারতীয় সেনাবাহিনীও পাল্টা হামলা চালিয়েছে বলে জানানো হয়েছে। তবে ভারতীয় বাহিনীর হামলায় পাকিস্তানি বাহিনীর ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে কিছু জানায়নি তারা।

গত ১৭ আগস্ট থেকে পাকিস্তানি বাহিনী রাজৌরি ও পুঞ্চ জেলায় ছোট অস্ত্রের সাহায্যে গুলিবর্ষণের পাশপাশি মর্টার হামলা চালালে এনিয়ে ভারতের চতুর্থ মৃত্যুর ঘটনা ঘটল।

এর আগে গত মঙ্গলবার কৃষ্ণাঘাঁটি সেক্টরে পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন রবিরঞ্জন কুমার সিং (৩৬) নামে ভারতীয় এক সেনা সদস্য। ওই দিনই সীমান্তের টাট্টাপানি এলাকার নিয়ন্ত্রণ রেখায় পাকবাহিনীর গুলিতে ৬ ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছেন।

৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মধ্য দিয়ে কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার ও বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেয় বিজেপি নেতৃত্বাধীন ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।

লাদাখ ও কাশ্মীরকে দুটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করতে পার্লামেন্টে বিল আনা হয়। বিরোধীরা বিষয়টি নিয়ে সরব হলেও তাদের ঐক্যবদ্ধ বিরোধিতার অভাবে লোকসভা ও রাজ্যসভা দুই কক্ষে বিলটি পাস হয়।

কাশ্মীর ইস্যুতে শুরু থেকেই যুদ্ধাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে ভারত পাকিস্তানের মধ্যে। পাকিস্তানের সঙ্গে চলমান উত্তেজনার মধ্যে পরমাণু নীতিতে পরিবর্তন আনার হুমকিও দিয়েছে ভারত। পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় ‘উগ্রপন্থি মোদি সরকারে’র হাতে পরমাণু অস্ত্র অনিরাপদ আখ্যায়িত করে বিষয়টিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

Facebook Comments