ইয়াওমুল আরবিয়া (বুধবার), ২০ নভেম্বর ২০১৯

সিলেট থেকে খুলনা দাবী বিজেপি নেতার

সিলেট থেকে খুলনা দাবী বিজেপি নেতার

বিজেপি নেতা সুব্রামানিয়ান স্বামী সম্প্রতি প্রকাশ্য জনসভায় বাংলাদেশের কাছে সিলেট থেকে খুলনা এক তৃতীয়াংশ ভূখণ্ড দাবি করেছেন।
বাংলাদেশের দক্ষিনাঞ্চল খুলনা থেকে সিলেট পর্যন্ত সমান্তরাল রেখা টেনে এই জমি ভারতের হাতে ছেড়ে দেবার দাবী জানান।
ভারতের কট্টর হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপির এই শীর্ষ নেতার যুক্তি হলো, দেশ ভাগের পর অধুনা বাংলাদেশ থেকে এক তৃতীয়াংশ মুসলমান ভারতে অনুপ্রবেশ করেছে। তাদের ফিরিয়ে নিতে হবে বাংলাদেশকে। অন্যথায় এসব মুসলমানের সংস্থাপনের জন্য এক তৃতীয়াংশ ভূখণ্ড জমি ছাড়তে হবে বাংলাদেশকে।

তার দাবী অনুযায়ী যদি এই রেখার উত্তর-পশ্চিম ও উত্তর-পূর্বের জেলাগুলো ভারতকে দিয়ে দিতে হবে।
এর অর্থ দাঁড়ায় যশোর, মাগুরা, রাজবাড়ী, মানিকগঞ্জ, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ ও নেত্রকোনা জেলাসমূহের অংশ বিশেষসহ উত্তরাঞ্চলের বৃহত্তর রংপুর, দিনাজপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, কুষ্টিয়া, ফরিদপুর, জামালপুরসহ বিস্তীর্ণ এলাকা ভারতকে দিয়ে দেয়া। এই এলাকাটি বাংলাদেশ ভূখ-ের এক তৃতীয়াংশের বেশি।

আর যদি সমান্তরাল রেখা হয় তা হলে প্রথমোক্ত সরল রেখাটির পাশাপাশি হবিগঞ্জ-ব্রাহ্মণবাড়িয়া বর্ডার থেকে বঙ্গোপসাগর বরাবর বাগেরহাট বর্ডার পর্যন্ত। এক্ষেত্রে সমান্তরাল দুটি রেখার মধ্যবর্তী অঞ্চলগুলোর মধ্যে রয়েছে বৃহত্তর সিলেট, বৃহত্তর ময়মনসিংহের বেশিরভাগ অঞ্চল, বৃহত্তর ঢাকা, বৃহত্তর ফরিদপুর, বৃহত্তর যশোর, বৃহত্তর বরিশাল এবং বৃহত্তর খুলনা নিয়ে সমগ্র অঞ্চল এবং বৃহত্তর কুমিল্লার অংশবিশেষ।

এক্ষেত্রে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাসহ দুই সমান্তরাল রেখার অন্তর্ভুক্ত সব জেলাগুলোকেই ভারতের কাছে হস্তান্তর করতে হবে এবং এই ভূখ-টি আমাদের মোট ভূখ-ের এক তৃতীয়াংশের মত হয়। বিজেপি নেতা শ্রীমান সুব্রামানিয়াম এই অঞ্চলটি দাবি করেছেন।

একটা স্বাধীন সার্বভৌম দেশের রাজধানীসহ এক তৃতীয়াংশ ভূখণ্ড দাবি করা কোনও সাধারণ ঘটনা হতে পারে না।

হিন্দুত্ববাদী মোদী সরকার কতটুকু মুসলমান বিদ্বেষী তার প্রমান পাওয়া যায় এই নেতার বক্তব্যে। এই নেতার অযোক্তিক দাবির প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও অন্যান্য নেত্রীবৃন্দ কি প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করেন তা এখন দেখার বিষয়।

Facebook Comments