ইয়াওমুল খামিছ (বৃহস্পতিবার), ২২ আগস্ট ২০১৯

ভারতে ভয়াবহ বন্যা: শত শত প্রাণহানি, লক্ষ লক্ষ মানুষ গৃহহীন

ভারতে ভয়াবহ বন্যা: শত শত প্রাণহানি, লক্ষ লক্ষ মানুষ গৃহহীন

ভারতে ভয়াবহ বন্যা : ১০০ জনের উপরে প্রাণহানি।
বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে শত শত ভারতীয়।
লক্ষ লক্ষ মানুষ গৃহহীন।

ভারতে চার রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হচ্ছে।
বন্যার জেরে মহারাষ্ট্র, কর্নাটক, তামিলনাড়ু ও কেরালা রাজ্যে ইতোমধ্যে মারা গেছেন প্রায় ১০০ জন। ৫ লাখেরও বেশি মানুষ গৃহহীন।

জানা গেছে, এই বন্যায় সবচেয়ে খারাপ অবস্থা কেরালার ওয়ানাডের। শুধুমাত্র কেরালায় গত তিন দিনে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৫০ জনের। এক লাখেরও বেশি মানুষকে রিলিফ ক্যাম্পে সরানো হয়েছে। কোচিন এয়ারপোর্টে বিমান ওঠা-নামা বন্ধ রয়েছে। ওয়ানাড ও মালাপ্প‌ুরমে একের পর ধসের ঘটনা উদ্বেগ আরও বাড়িয়েছে। মালাপ্প‌ুরমে ৪০ জন ধসের নীচে আটক বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

এদিকে, মহারাষ্ট্রে একাধিক জেলা ভারী বৃষ্টির কারণে বিচ্ছিন্ন হয়ে রয়েছে। গত কয়েকদিন এখানে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ২৮ জনের। বহু বাড়ি এমনকি ফ্লাইওভারও ডুবে আছে জলের তলায়। কর্নাটকের উপকূলবর্তী এলাকাও প্লাবিত। বন্যা প্লাবিত এলাকার জন্য বিশেষ ত্রাণ ঘোষণা করতে ওয়ানাডের সাংসদ রাহুল গান্ধি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন।

ভারতে ভয়াবহ বন্যা: বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে শত শত ভারতীয়
ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলের কোচবিহার জেলার অন্তত দুটি এলাকা থেকে বহু মানুষ সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে গেছেন বলে জানিয়েছে ওই এলাকার থেকে নির্বাচিত পশ্চিমবঙ্গের এক মন্ত্রী।

বাংলাদেশের লালমনিরহাট থেকে বিজিবি কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল গোলাম মোরশেদ বলেন, সীমান্তের ওই এলাকাটি একটু অদ্ভুত। সীমান্তে বাংলাদেশের দুটি গ্রাম মোগলহাটা ও দুর্গাপুরের মধ্যবর্তী জায়গায় রয়েছে তিনটি ভারতীয় গ্রাম, যেগুলো ধরলা নদী দ্বারা ভারত থেকে বিচ্ছিন্ন এবং বাংলাদেশের মূল ভূখণ্ডের সাথে যুক্ত। সীমান্তে কাঁটাতারও নেই সেখানে। ফলে বন্যাপ্লাবিত হওয়ার পর তারা আর ধরলা পাড়ি দিয়ে ভারতে যেতে পারেনি, তাই বাংলাদেশে চলে এসেছে।

Facebook Comments