ইয়াওমুল খামিছ (বৃহস্পতিবার), ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

কাশ্মিরের সমর্থনে পথে নেমে এসেছিল গোটা পাকিস্তান

২১ শতকের মিউনিখ মোমেন্টের ব্যাপারে হুঁশিয়ারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : গোটা পাকিস্তানে আজ (শুক্রবার) কাশ্মিরের সমর্থনে বিক্ষোভ হয়েছে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আহ্বানে গোটা পাকিস্তানব্যাপী মানুষ আজ রাস্তায় নেমে আসে এবং এ সময়ে সব শহরের যান চলাচল, সব ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছিল। বিক্ষোভাকারীরা কাশ্মিরের জনগণের প্রতি তাদের সংহতি ঘোষণা করেছেন।

রাজধানী ইসলামাবাদে হাজার হাজার বিক্ষোভকারীর উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে ইমরান খান বলেন, কঠিন পরীক্ষার এ সময়ে আমরা কাশ্মিরবাসীদের সাথে আছি। আজ কাশ্মিরের প্রতি যে বার্তা দেয়া হচ্ছে তা হলো কাশ্মির স্বাধীন না হওয়া পর্যন্ত পাকিস্তানের মানুষ কাশ্মিরবাসীদের পাশে থাকবে।

ইমরান খান তার ভাষণে কঠোর ভাষায় ভারতের সমালোচনা করেন। তিনি দাবি করেন, আরএসএসের আদর্শ ভারতকে গ্রাস করেছে। যে ভাবে নাৎসিরা জার্মানিকে গ্রাস করেছিল সেভাবেই ভারতকে গ্রাস করা হয়েছে।

স্থানীয় সময় বেলা ১২টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত গোটা পাকিস্তানের যানবাহন চলাচল স্তব্ধ হয়ে যায়। রাস্তার ট্রাফিক আলো নিভিয়ে দেয়া হয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালত, ব্যাংক-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, বেসকারি অফিস- আইনজীবী এবং সামরিক কর্তৃপক্ষসহ সবাই রাস্তায় নেমে আসেন। কাশ্মিরের জনগণের প্রতি বিশ্ববাসীর দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য আজকের এ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এ সময়ে গোটা দেশের রেডিও এবং টিভিতে পাকিস্তান ও পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত আজাদ কাশ্মিরের জাতীয় সংগীত প্রচারিত হয়।

চলতি মাসের ৫ তারিখে ভারতের নরেন্দ্র মোদির সরকার জম্মু এবং কাশ্মিরের বিশেষ অধিকার বাতিল করা এবং এ অঞ্চলকে দুই ভাগ করার পর থেকেই পাকিস্তান প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে। এরই মধ্যে ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক হ্রাস করেছে পাকিস্তান।

এদিকে ৫ আগস্টের পর থেকে কাশ্মিরের সঙ্গে টেলিফোন, ইন্টারনেটসহ সব যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে ভারত সরকার। ভারত সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কাশ্মিরের প্রতিবাদ হচ্ছে। কিন্তু প্রতিবাদকারীদের নির্বিচারে গ্রেফতার এবং নির্যাতন করা হচ্ছে বলে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে প্রচারিত খবর থেকে জানা যাচ্ছে।

Facebook Comments