ইয়াওমুল ইসনাইন (সোমবার), ১৮ নভেম্বর ২০১৯

খালেদার হাসপাতালে থাকার বিষয়টি দেখবে মেডিকেল বোর্ড

নিউজ ডেস্ক : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া হাসপাতালে থাকার বিষয়টি মেডিকেল বোর্ড এবং প্যারোলে মুক্তির ব্যাপারে দেখবে সরকার।

সেতুমন্ত্রী আজ দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।
খালেদা জিয়া সরকারের সঙ্গে সমঝোতার ভিত্তিতে দীর্ঘদিন ধরে হাসপাতালে আছেন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তিনি (খালেদা জিয়া) কেন এতোদিন হাসপতালে আছেন সেটা কারা কর্তৃপক্ষ বলতে পারবে। তার চিকিৎসার জন্য একটা মেডিকেল বোর্ড আছে, তিনি কতদিন হাসপাতালে থাকবেন সেটা মেডিকেল বোর্ড দেখবে।’
তিনি বলেন, ‘ তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে গেলে হাসপাতালে থাকবেন কি-না সেটা মেডিকেল বোর্ড দেখবে। তবে, খালেদা জিয়া প্যারোল চাইলে সেটা সরকার দেখবে।’
খালেদা জিয়া কি প্যারোল চেয়েছেন এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কেন চাইবেন। প্যারোলের কতগুলো শর্ত থাকে। যদি কোনো কারণ না থাকে, তাহলে প্যারোল চাইবেন কেন?’
প্রধানমন্ত্রীর চীন সফর নিয়ে বিএনপির মন্তব্য সম্পর্কে জানতে চাইলে সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, চীন আমাদের উন্নয়ন সহযোগী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরে চীনের সঙ্গে ২ বিলিয়ন ডলারের সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছে। এটাকে উড়িয়ে দেওয়া যায় না। উন্নয়নের জন্য সমঝোতা হয়েছে। কিন্তু উন্নয়ন বিএনপির নেতারা দেখেন না। উন্নয়ন দেখার জন্য তাদের পাওয়ারের চশমা পরা দরকার।
তিনি বলেন, চীন সফরে রোহিঙ্গা ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়টি জোরালোভাবে উপস্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চীনের কাছ থেকে আশ্বাস পাওয়া গেছে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে মিয়ানমারকে চীন চাপ প্রয়োগ করবে।
তিনি আরো বলেন, আসলে বিএনপি ক্ষমতায় থেকে যে প্র্যাকটিসটা করেছে তারা সেটাই দেখছেন। এখন তারা সেটা করতে পারছেন না বলে তাদের এ গাত্রদাহের কারণ।
পাবনার ঈশ্বরদীতে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও তৎকালীন বিরোধী দলের নেতা শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলি বর্ষণের মামলার রায় নিয়ে বিএনপির অভিযোগ সম্পর্কে কাদের বলেন, কোনো মামলার রায় বিএনপির বিরুদ্ধে গেলে সেটাতে সরকারের হস্তক্ষেপ বলে অভিযোগ করাটা তাদের গতানুগতিক বক্তব্য। আদালতের কোনো রায় বিএনপির বিরুদ্ধে গেলে সেটা সরকারের ওপর চাপানো বিএনপির পুরোনো অভ্যাস। এতে নতুনত্ব কিছু নেই।
বরগুনায় রিফাত হত্যার মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হওয়ার বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তো বলেনি এটা বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড। আমরা বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ডের সমর্থন করি না। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ডের কোনো স্বীকৃতি দেয়নি।

Facebook Comments