ইয়াওমুস ছুলাছা (মঙ্গলবার), ১৯ নভেম্বর ২০১৯

কিশমিশ বাড়ায় হজমশক্তি

নিউজ ডেস্ক: খাবারের স্বাদ বাড়াতে কিশমিশ ব্যবহার করা হয়। বিশেষ করে মিষ্টি জাতীয় খাবার, কেক, বেকারি খাবার তৈরিতে এটি বেশি ব্যবহৃত হয়। কিশমিশের দারুণ কিছু পুষ্টি গুণ রয়েছে। নিয়মিত কয়েকটি করে কিশমিশ খেলে নানা ধরনের উপকার পাওয়া যায়।

প্রতিদিন কয়েকটি কিশমিশ খেলে পাকস্থলীর স্বাস্থ্য ভালো থাকে। এতে থাকা ফাইবার হজমশক্তি বাড়ায়, কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়। কিশমিশে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম থাকে। এগুলো অ্যাসিটিডি কমায় এবং শরীর থেকে টক্সিন বের করতে সাহায্য করে। নিয়মিত কিশমিশ খেলে আর্থ্রাইটিস প্রতিরোধ, কিডনিতে পাথর জমা এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।

কিশমিশে থাকা আয়রন ও ভিটামিন বি কমপ্লেক্স রক্তশূন্যতা দূর করে। অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ কিশমিশ ক্যান্সার প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে। কিশমিশে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান ঘন ঘন জ্বর হওয়ার ঝুঁকি কমায়। সেই সঙ্গে শরীরের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে। নিয়মিত কিশমিশ খেলে যে কোনো ধরনের সংক্রমণ কমে। কিশমিশে থাকা ফিটোকেমিক্যালস উপাদান দাঁতের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। ক্যালসিয়ামের ভালো উৎস হচ্ছে কিশমিশ। নিয়মিত এটি খেলে হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো থাকে। কিশমিশে থাকা ভিটামিন এ, বিটা ক্যারোটিন চোখের সুরক্ষায় দারুণ কাজ করে।

 

Facebook Comments