ইয়াওমুল জুমুআ (শুক্রবার), ২২ নভেম্বর ২০১৯

ইসরায়েলি সহযোগিতায় পাকিস্তানে ‘ভয়ঙ্কর হামলা’র পরিকল্পনা ছিল ভারতের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
বালাকোটে জয়েশ-ই-মোহাম্মদের ঘাঁটিতে ভারতীয় বিমান হামলার পর সৃষ্ট উত্তেজনার মধ্যেই ইসরায়েলি সহযোগিতায় পাকিস্তানে ‘ভয়ঙ্কর হামলা’র পরিকল্পনা করেছিল ভারত। সোমবার পাকিস্তান সরকারের ঊর্ধ্বতন একটি সূত্রকে উদ্ধৃত করে এ খবর জানিয়েছে দেশটির ইংরেজি সংবাদমাধ্যম ডন।

পাকিস্তান সরকারের ঊর্ধ্বতন এই সূত্রটি কয়েকজন সাংবাদিককে ভারতের ভয়ঙ্কর হামলার পরিকল্পনার বিষয়ে ব্রিফ করেছেন। সূত্রমতে, ইসরায়েলের সহযোগিতায় রাজস্থানের বিমান ঘাঁটি থেকে পাকিস্তানে হামলার পরিকল্পনা ছিল ভারতের। কিন্তু সময় মতো গোয়েন্দা তথ্য ও গোপন যোগাযোগের ফলে ভারতের কাছে এটা স্পষ্ট হয় যে, যদি তারা এই হামলার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে তাহলে উভয় দেশকে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়া থেকে ফেরানো যাবে না।
সূত্রটি পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই‘কে বিশ্বের অন্যতম সেরা বলে আখ্যায়িত করে। তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেন, ভারতের পরবর্তী পদক্ষেপ পদাতিক, বিমান বা ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হবে না। পাকিস্তানে ভারত জঙ্গি স্টাইলে হামলা চালাতে পারে। কিংবা পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক পদক্ষেপ নেবে ভারত।
একই ধরনের আশঙ্কার কথা একটি সামরিক সূত্রও ডনের প্রতিবেদকের কাছে জানিয়েছিলেন।
পুলওয়ামায় হামলার জেরে ২৬ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বিমানবাহিনী পাকিস্তানের আকাশসীমায় ঢুকে বোমাবর্ষণ করে। পরদিন বুধবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে নিজেদের সীমানায় দুটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান ভূপাতিত ও অভিনন্দন বর্তমান নামের এক পাইলটকে আটক করে পাকিস্তান। ’৭১-পরবর্তী সময়ে প্রথমবারের মতো পাল্টাপাল্টি বিমান হামলায় দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বাড়তে শুরু করে। বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতের সঙ্গে উত্তেজনা প্রশমনে সদিচ্ছার প্রতীক হিসেবে আটক অভিনন্দনকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানান। শুক্রবার রাত নয়টার কিছু পরে ওই পাইলটকে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের হাতে হস্তান্তর করে পাকিস্তান।

Facebook Comments