ইয়াওমুল জুমুআ (শুক্রবার), ২২ নভেম্বর ২০১৯

সিশেলসে বাংলাদেশ কর্মী পাঠাবে সরকার

নিউজ ডেস্ক:বাংলাদেশ-সিশেলসপূর্ব আফ্রিকার পর্যটনসমৃদ্ধ দেশ সিশেলসে জনশক্তি পাঠানোর পরিকল্পনা করছে সরকার। রবিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীতে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে জনশক্তি পাঠনোর বিষয়ে এগ্রিমেন্ট অব লেবার কোঅপারেশন (এএলসি) খসড়া চূড়ান্ত করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব রৌনক জাহান।
সভায় তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের দক্ষ ও সফল কূটনৈতিক প্রচেষ্টায় বাংলাদেশের জন্য নতুন নতুন শ্রমবাজার উন্মুক্ত হচ্ছে। সিশেলস সরকারের চাহিদার ভিত্তিতে বাংলাদেশ সরকার দক্ষ জনশক্তি পাঠানোর পরিকল্পনা করেছে। এতে বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও রেমিটেন্স বৃদ্ধির ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিশেলসে তিনটি ক্যাটাগরিতে বিদেশি কর্মীর চাহিদা আছে। প্রথম ক্যাটেগরিতে আছে পর্যটন, নির্মাণ, কৃষি, উৎপাদন, মৎস্য, আর্থিক সেবা ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান, দ্বিতীয় ক্যাটেগরিতে বাণিজ্য ও বয়স্কদের সেবা খাত এবং তৃতীয় ক্যাটেগরিতে রয়েছে গৃহকর্মী।
কর্মী নিয়োগে দেশটির নীতিমালা বলছে, একজন বিদেশি কর্মী একটি পদে সর্বোচ্চ ৬ বছর কাজ করতে পারবেন। তবে সেদেশের শ্রমবাজারের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে সরকার মেয়াদ বাড়াতে পারবে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মো. সেলিম রেজা, সরকারিভাবে বিদেশে কর্মী পাঠানোর প্রতিষ্ঠান বোয়েসেল-এর নির্বাহী পরিচালক ড. ইয়ামীন আকবরী, এনডিসি, মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মো. ফজলুল করীম, মো. জাহাঙ্গীর আলম, নাসরীন জাহান, মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মনির হোসেন চৌধুরী, ড. মাসুমা পারভীন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের উপসচিব সাগরিকা নাসরিন, বিএমইটি’র পরিচালক (কর্মসংস্থান) ডিএম আতিকুর রহমান, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের পরিচালক মো. জহিরুল ইসলাম প্রমুখ।

Facebook Comments