ইয়াওমুল খামিছ (বৃহস্পতিবার), ১৪ নভেম্বর ২০১৯

সংবিধানে আল্লাহ পাকের প্রতি আস্থা-বিশ্বাস প্রতিস্থাপন ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করতে হবে -ওলামা লীগ

 

ষ্টাফ রিপোর্টার:

বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগসহ সমমনা ১৩টি ইসলামি দলের নেতৃবৃন্দ সংবিধানে ‘আল্লাহ পাকের প্রতি পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস’ পুনরায় স্থাপনের দাবি করেছেন। তারা বলেন, সকল শ্রেণীর সিলেবাসে ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করাসহ রাসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর অবমাননা ও কটাক্ষের শাস্তি মৃত্যুদন্ডের আইন করতে হবে। নেতৃবৃন্দ ইসলাম ও মুসলমানদের নিয়ে অব্যাহত কটুক্তির কারণে তারানা হালিমের সাবেক এপিএস আ’লীগের সংরক্ষিত নারী আসনের মনোনয়ন ক্রয়কারী পূর্ণিমা রাণী শীলসহ কটাক্ষকারীদের গ্রেফতারের দাবি জানান। আজ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচীতে এসব দাবি করেন, সংগঠনের সভাপতি পীরজাদা মাওলানা আখতার হুসাইন বুখারী, সেক্রেটারী- মাওলানা আবুল হাসান শেখ শরীয়তপুরী, কার্যকরী সভাপতি হাফেয মাওলানা আব্দুস সাত্তার। আরো বক্তব্য রাখেন, মাওলানা শওকত আলী শেখ ছিলিমপুরী, লায়ন মাওলানা আবু বকর সিদ্দীক প্রমুখ।

মানববন্ধনে উত্থাপিত অন্যান্য দাবিসমূহ –

আওয়ামী লীগ নির্বাচনী ইশতিহারে কুরআন, সুন্নাহ বিরোধী কোন আইন প্রণয়ন না করার ঘোষণা দিয়েছে। সুতরাং সংবিধানে সর্বশক্তিমান আল্লাহর প্রতি পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস অনুছেদটি পুনরায় প্রতিস্থাপন করতে হবে।

রাসুলে পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের শানে মানহানীকর বক্তব্য, লেখা, প্রকাশনা, টিভি প্রোগ্রাম, রেডিও প্রোগ্রাম, ইন্টারনেটে স্ট্যাটাসসহ যে কোন বিষয় প্রচার, প্রকাশ ও প্রদানকারীর শাস্তি শুধুমাত্র মৃত্যুদ- দিতে হবে।

উপজাতিদের আদিবাসী দাবি করে সুলতানা কামাল, ব্লাস্ট নামক একটি এনজিও এবং ইহুদী ডেভিড বার্গম্যান পার্বত্য চট্টগ্রামকে বিচ্ছিন্ন করার জন্য স্বাধীন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহী ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। এদেরকে গ্রেফতার ও সর্বোচ্চ শাস্তি দিতে হবে।

বাংলাভাষী নাম দিয়ে আসাম থেকে মুসলিম বিতাড়ণের বিরুদ্ধে কুটনৈতিকভাবে জোড়ালো প্রতিবাদ জানাতে হবে। বাংলাদেশে অবস্থানরত ৫০ লাখ অবৈধ ভারতীয়কে ফেরত পাঠাতে হবে।

চীন রাষ্ট্রীয়ভাবে মুসলিম নিপীড়নে আইন প্রণয়ন করায় বাংলাদেশসহ সমগ্র মুসলিম বিশ্বকে রাষ্ট্রীয়ভাবে তীব্র প্রতিবাদ জানাতে হবে।

বিপিএল-এর নামে দেশকে জুয়াড়ীদের আস্তানায় পরিণত করা হচ্ছে। যা সম্পূর্ণ সংবিধান বিরোধী। জুয়াড়ী তৈরীর কারখানা বিপিএল, আইপিএল খেলা বন্ধ করতে হবে।

‘আমি সব ধর্মের জন্য কাজ করবো’ ধর্মপ্রতিমন্ত্রী এ ঘোষণা দেয়ায় সাম্প্রদায়িকতার বীজ তৈরীকারী তথাকথিত সংখ্যালঘু মন্ত্রনালয় গঠন এবং বৈষম্যমূলক সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন করা যাবে না।

বাফুফে নারী ফুটবলারদের বিয়ে নিষিদ্ধ করে লিভটুগেদারে উৎসাহিত করছে। এই সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে।

দেশে ১৮ বছরের নীচে ছেলে-মেয়ের একান্তবাস ও বাল্য প্রেম করার বিরুদ্ধে কোনো আইন নেই কিন্তু বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে আইন করা হয়েছে। এ আইন বাতিল করতে হবে।

দেশে অশ্লীলতা ও ইসলাম বিদ্বেষ ছড়ানোর জন্য ইউটিউব, ব্লগ, ইলেকট্রনিক মিডিয়া ও অফ লাইন মিডিয়ার বিরুদ্ধে সরকারকে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে।

যানজট ও জনজট নিরসনে ঢাকার পরিবর্তে জেলা পর্যায়ে অফিস-আদালত, গার্মেন্টস, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, বিভিন্ন কর্মক্ষেত্র বিকেন্দ্রীকরণ করতে হবে।

Facebook Comments