ইয়াওমুল ইসনাইন (সোমবার), ১৮ নভেম্বর ২০১৯

শরণার্থী শিবিরে বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় প্ল্যান্ট কক্সবাজারে

নিজস্ব প্রতিবেদক:নানা ত্রুটি-বিচ্যুতির পরও এটা সত্য, বর্জ্য অপসারণের ব্যবস্থাপনা আগের চেয়ে সফলতার দিকে যাচ্ছে এবং জনবলও দক্ষ হয়েছে। যদিও সার্বিকভাবে সঠিক ও টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনার অভাবে দেশের পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে রয়েছে। প্রতিদিন বিভিন্ন ধরনের হাজার হাজার টন বর্জ্য তৈরি হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে শিল্পকারখানার বর্জ্য, ইলেকট্রনিক বর্জ্য, চিকিৎসা বর্জ্য, গৃহস্থালি বর্জ্য, পয়ঃবর্জ্য প্রভৃতি।

সঠিক ব্যবস্থার অভাবে পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্য অনেকটাই ঝুঁকির মধ্যে থাকে। তবে আশার কথা হচ্ছে সম্প্রতি শরণার্থী সেবায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্ল্যান্ট উদ্বোধন হয়েছে বাংলাদেশের কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর-এর সহায়তায় প্রায় দেড় লাখ মানুষের বর্জ্য ব্যবস্থাপনার ধারণক্ষমতা সম্পন্ন এ প্ল্যান্টটি তৈরি করেছে আন্তজার্তিক সংস্থা অক্সফ্যাম। ২৯ জানুয়ারি, মঙ্গলবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে প্ল্যান্টটির উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ড. মোহাম্মদ এনামুর রহমান।

নীতিগত দিক দিয়ে বিবেচনা করলে দেশে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সুনির্দিষ্ট কোনো আইনও বর্তমানে তেমন কার্যকর নয়। তাই বর্জ্য অপসারণ ব্যবস্থাপনার মতো গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে পর্যায়ক্রমিক ও সচেতনতামূলক কর্মকাণ্ডে নগর কর্তৃপক্ষ এখনই যদি জোরালো নজর না দেয়, তাহলে এমন একসময় আসবে, যখন প্রাকৃতিক পরিবেশ, মানুষের স্বাস্থ্য ও জীবন হুমকিতে পড়বে, এমনটাই মনে করেন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা।

Facebook Comments