ইয়াওমুল খামিছ (বৃহস্পতিবার), ১৪ নভেম্বর ২০১৯

রেলমন্ত্রণালয় ১৪ মাসেই ডিজিটাল হবে , জানালেন পলক

উদ্বোধনের দিনেই ট্রেন চলাচল করবে পদ্মাসেতুতে

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশের মানুষের কাছে রেল বা ট্রেন একটি জনপ্রিয় এবং আরমদায়ক যানবাহন। রেলওয়েকে ডিজিটালাইজ করতে ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী ১৪ মাসের মধ্যে রেলওয়ে ঢালাওভাবে সাজিয়ে পূর্ণ ডিজিটাল করা হবে।

৩১ জানুয়ারি, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে ডিজিটালকরণের কার্যক্রম শুরু হবে। রেলওয়ে মন্ত্রণালয়কে ডিজিটালাইজ করতে যৌথভাবে কাজ করবে তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগ এবং এটুআই।

প্রতিমন্ত্রীর তথ্য অনুযায়ী, যৌথ এই পদক্ষেপে রেলওয়ের যাত্রীরা ঘরে বসে ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ থেকে শুরু করে ট্রেনের সব খোঁজখবর পাবেন। এ ছাড়া রেলওয়ের সব প্রকার কার্যক্রম হবে ডিজিটাল।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালের এপ্রিলে ওয়ানস্টপ ডিজিটাল রেল যাত্রীসেবা সিস্টেমের আওতায় আসবে রেলওয়ে মন্ত্রণালয়।

এ বিষয়ে বুধবার সকালে রেলওয়ে ভবনে পলক বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য রেলওয়ে মিনিস্ট্রিকে (মন্ত্রণালয়) সম্পূর্ণ ডিজিটালাইজ করা। আমাদের মিশন টাইম, কস্ট এবং ভিজিট কমিয়ে কোয়ালিটি সার্ভিস প্রোভাইড করা। এই অ্যাকশন প্ল্যানে আইসিটি ডিভিশন, এটুআই এবং রেলওয়ে মিনিস্ট্রি যৌথভাবে কাজ করবে।’

পলক বলেন, ‘আমরা আগামীকাল সকাল ৯টা থেকে কাজ শুরু করবো। আমাদের প্রথম লক্ষ্য হবে আমাদের ট্রেনের যতো যাত্রী আছে তারা ওয়েবসাইট হোক বা মোবাইল অ্যাপই হোক, তারা ঘরে বসে টিকিট, ট্রেনের খবর পাবেন। কিউআর কোড দিয়ে তারা ট্রেনে চড়ে বসবে। রেলের ইন্টারন্যাল ম্যানেজমেন্ট, যেমন অফিস ম্যানেজমেন্ট, মিটিং ম্যানেজমেন্ট, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট, টেন্ডারিংসহ যত রকমের কার্যক্রম রয়েছে তা প্রযুক্তিনির্ভর করার জন্য যে ইআরপি সল্যুশন তা সম্পূর্ণ ডেভেলপ করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগামীকাল সকাল ৯টায় এই যৌথ কমিটি বসবে। সাতদিনের মধ্যে মন্ত্রী মহোদয়কে আমরা এটি উপহার দেব। ২০২০ সালের এপ্রিলে আমাদের ওয়ানস্টপ ডিজিটাল রেল যাত্রীসেবা সিস্টেম মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেবো।

Facebook Comments