ইয়াওমুল আহাদ (রবিবার), ২৯ মার্চ ২০২০

কেউ যেন দূরে পড়ে না থাকে’‘কেউ যেন অবহেলিত না হয়,

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সমাজের সব শ্রেণির জন্য নির্দিষ্ট অর্থ বরাদ্দ রয়েছে। কেউ যে অবহেলার শিকার না হয়, অধিকার বঞ্চিত না হয়, সেজন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এবং কাজ করা হচ্ছে।

৩১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে সমতলের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ৫০০ মেধাবী শিক্ষার্থীকে উচ্চশিক্ষার জন্য বৃত্তি প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ভাগ্য কীভাবে পরিবর্তন করা যায়, সে চিন্তাটাও আমাদের মাথায় ছিল। সেদিকে লক্ষ্য রেখেই আমরা একটা উদ্যোগ নেই এবং যে কারণে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আমরা আলাদা একটা ফান্ড তৈরি করি। বিভিন্নভাবে তাদেরকে ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করা। সাংস্কৃতিক বিকাশ যাতে ঘটে সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া। আর সেই সাথে শিক্ষায় যেন তারা সব দিক থেকে সুন্দর জীবন পায় সেদিকে লক্ষ্য রেখেই এই বৃত্তি দেওয়া এবং নানা কাজ আমরা শুরু করেছি।’

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে গঠিত শিক্ষা সহায়তার ট্রাস্ট ফান্ডের কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘সে ফান্ডের মাধ্যমে আমরা সমগ্র দেশে উচ্চশিক্ষার জন্য ছাত্রছাত্রীদের বৃত্তি দিচ্ছি। সাধারণভাবে শিক্ষাক্ষেত্রে আমরা ব্যাপকভাবে বৃত্তি দিয়ে যাচ্ছি, প্রায় দুই কোটি চার লাখ শিক্ষার্থী এই বৃত্তি পাচ্ছে। আর সেই সাথে আবার ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জন্য আমরা আলাদাভাবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বৃত্তির ব্যবস্থা করে যাচ্ছি।’

সমাজের সকল শ্রেণির জন্য নির্দিষ্ট অর্থ বরাদ্দ আছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সামাজিক ও অর্থনৈতিক স্বাবলম্বিতা অর্জন করা এবং সেই সাথে সাথে তাদের সংস্কৃতির বিকাশ ঘটানো এবং শিক্ষা-দীক্ষায় আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে যেন আমাদের সকল জনগোষ্ঠী সমান সুযোগ পায়। কেউ যেন অবহেলিত না হয়, কেউ যেন দূরে পড়ে না থাকেই সেটাই হচ্ছে আমাদের লক্ষ্য এবং এই লক্ষ্যে নিয়েই আমরা কিছু বিশেষভাবে উদ্যোগ নিয়েছি। যার ফলেই আজকে এই বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান।’

Facebook Comments