ইয়াওমুল ইসনাইন (সোমবার), ১৮ নভেম্বর ২০১৯

নির্যাতনেই উইঘুর ভাষায় পবিত্র কোরআন অনুবাদকারী মু. সালিহর ইন্তেকাল

 

চীনের জিনজিয়ান প্রদেশের উইঘুর ইসলামিক পন্ডিত মুহাম্মদ সালিহ হাজিম চীনা রাজনৈতিক মত দীক্ষাদান ক্যাম্পে মৃত্যুবরণ করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। নির্যাতনের কারণেই তার মৃত্যু ঘটেছে বলে এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছে ওয়ার্ল্ড উইঘুর কংগ্রেস (ডব্লিউইউসি)। মধ্য এশিয়ায় বসবাসরত তুর্কি বংশোদ্ভূত একটি জাতিগোষ্ঠী উইঘুরদের একটি বড় অংশ চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে বসবাস করে। এক বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে হাজিমকে (৮২) আটক করা হয় এবং তারপর থেকেই তাকে রাজনৈতিক মত দীক্ষা ও প্রপাগান্ডার আওতায় নিয়ে আসা হয়। নির্বাসিত আন্তর্জাতিক উইঘুর কংগ্রেসের বিবৃতিতে জানানো হয়, হাজিম পবিত্র কোরআন আরবি থেকে উইগুর ভাষায় অনুবাদ করেছেন। এতে বলা হয়, কারাবাসের সময় তাকে খুব সম্ভবত নির্যাতন করা হয়েছে। উইঘুর জনগণের উপর চীনা কর্তৃপক্ষের দমনপীড়ন, বিশেষ করে ধর্মীয় স্বাধীনতার অধিকার নিয়ে ব্যাপক অভিযানের মধ্যই হাজিমের মৃত্যু ঘটল। বিবৃতিতে বলা হয়, ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে সালিহ হাজিমকে আটক করা হয়। কুখ্যাত ‘রি-এডুকেশন’ ক্যাম্পে আটকে রাখা হয়। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, উইঘুর মুসলিমদের ওপর চীন কর্তৃপক্ষের ব্যাপক নিপীড়ন, বিশেষ করে ধর্মীয় স্বাধীনতা হরণে চলমান দমন-পীড়নের মধ্যেই সালিহ হাজিমকে আটক করা হয়েছিল। ধর্মীয় বিশ্বাস ও অনুশীলন ত্যাগ করতে হাজার হাজার উইঘুর মুসলিমকে কুখ্যাত ‘রি-এডুকেশন ক্যাম্পে’ আটকে রাখা হয়। নিপীড়ন ক্যাম্পে সালিহ হাজিমের নিহতের বিষয়টি চীন কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করতে অস্বীকৃতি জানায়। আনাদুলো।

Facebook Comments