ইয়াওমুস ছুলাছা (মঙ্গলবার), ১৯ নভেম্বর ২০১৯

১১ বছর পর মা ও মেয়েকে জীবিত উদ্ধার

বরিশালে খুন ও লাশ গুমের অভিযোগে মামলার করার ১১ বছর পর মা ও মেয়েকে জীবিত উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনাই ইউনিয়নের ইছাগুড়া গ্রাম থেকে ১১ বছর ধরে নিখোঁজ জোৎস্না বেগম ও তার মেয়ে জিবাকে উদ্ধার করা হয়।

বরিশাল পুলিশের সিআইডি ইন্সপেক্টর মো. ফরিদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিআইডি ইন্সপেক্টর মো.ফরিদুজ্জামান বলেন,‘স্বামী আহাম্মদ উল্লাহর নির্যাতন থেকে বাঁচতে জোৎস্না তার মেয়ে জিবাকে নিয়ে আত্মগোপন করেন। এই ঘটনায় জোৎস্নার ভাই সরোয়ার খান বরিশাল কোতোয়ালি থানায় ২০০৭ সালের ৩১ জুলাই আহাম্মদ উল্লাহসহ তার পরিবারের ৬ জনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মাহবুবুর রহমান তদন্ত শেষে আহাম্মদ উল্লাহ ও তার ভাই শহীদকে অভিযুক্ত করে ২৩ নভেম্বর ২০০৭ তারিখে আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করেন এবং বাকি চার জনের বিষয়ে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেন। তবে অভিযুক্তরা গ্রেফতার এড়াতে পলাতক ছিলেন। এরপর হত্যার কোনও আলামত, লাশ ও সাক্ষ্য-প্রমাণ না-পাওয়ায় বরিশাল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক চলতি বছর ৩ জানুয়ারি মামলাটির অধিকতর তদন্তের জন্য সিআইডিকে নির্দেশ দেন। এর ২৭ দিনের মাথায় মঙ্গলবার দুপুরে বাপের বাড়ি যাওয়ার পথে জোৎস্না বেগম ও তার মেয়েকে উদ্ধার করে সিআইডি।’

আটককৃতরা সিআইডিকে জানায়, আহাম্মদ উল্লাহ’র নির্যাতন থেকে বাঁচতে তারা আত্মগোপনে ছিলেন। এ সময় ঢাকা ও বরিশালের বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপনে থেকে ভিক্ষাবৃত্তি ও মানুষের বাড়িতে কাজ করে তারা জীবিকা নির্বাহ করতেন।

পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন,‘উদ্ধারকৃতদের কোতোয়ালি থানার ভিক্টিম সাপোর্ট সেন্টারে রাখা হয়েছে। বুধবারে তাদের আদালতে সোপর্দ করা হবে। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Facebook Comments