ইয়াওমুল জুমুআ (শুক্রবার), ২২ নভেম্বর ২০১৯

রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে

ঢাকা : চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে রপ্তানি আয় হয়েছে ২৮৫ কোটি ৪২ লাখ ডলার। অথচ রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৭২ কোটি ১০ লাখ ডলার। সে হিসেবে ফেব্রুয়ারি মাসে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৪ দশমিক ৯০ শতাংশ বেশি রপ্তানি আয় দেশে এসেছে।

গত বছরের ফেব্রুয়ারির চেয়ে ১৩ দশমিক ৬০ শতাংশ রপ্তানি বেড়েছে। আগের বছর একই সময়ে রপ্তানি আয় হয়েছিল ২৫১ কোটি ২৪ লাখ টাকা।

বেশ কয়টি পণ্যের রপ্তানি কমলেও উভেন ও নিট পোশাকের উপর ভর করে বাংলাদেশে রপ্তানি আয় বৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রয়েছে। চলতি অর্থবছরের প্রথম আট মাসে (জুলাই-ফেব্রুয়ারি) পণ্য রপ্তানি থেকে বাংলাদেশ মোট দুই হাজার ২১২ কোটি ৩৭ লাখ ডলার আয় করেছে, যা নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২ দশমিক ৩৫ শতাংশ এবং গত অর্থবছরের জুলাই-ফেব্রুয়ারির চেয়ে ৮ দশমিক ৯২ শতাংশ বেশি।

ইপিবি রোববার রপ্তানি আয়ের হালনাগাদ যে তথ্য প্রকাশ করেছে তাতে দেখা গেছে, চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই-ফেব্রুয়ারি সময়ে দুই হাজার ১৬১ কোটি ৫০ লাখ ডলার লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে বাংলাদেশ দুই হাজার ২১২ কোটি ৩৭ লাখ ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছে।

গত অর্থবছরের একই সময়ে পণ্য রপ্তানি থেকে আয় হয়েছিল দুই হাজার ৩১ কোটি ১৭ লাখ ডলার। সেই হিসেবে গত আট মাসে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২ দশমিক ৩৫ শতাংশ বেশি আয় দেশে এসেছে।

চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই-ফেব্রুয়ারি সময়ে সবচেয়ে বেশি আয় হয়েছে উভেন পোশাক রপ্তানি থেকে। এ খাতে রপ্তানি আয় হয়েছে ৯৪৮ কোটি ৪২ লাখ ডলার। নিট পোশাক থেকে রপ্তানি আয় এসেছে ৮৬৪ কোটি ৩৪ লাখ ডলার।

Facebook Comments