ইয়াওমুস সাবত (শনিবার), ১১ এপ্রিল ২০২০

স্কুল পাঠ্যবইয়ে মুক্তিযুদ্ধের ভুল তথ্য

ঢাকা: চলতি বছরে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) প্রকাশিত সপ্তবর্ণা বইটিতে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে। আমাদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইতিহাস নিয়ে চরম বিভ্রান্তিতে পড়েছে শিক্ষার্থীরা।

অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য বাংলা বই হিসেবে পরিচিত সপ্তবর্ণার ৮১ নম্বর পৃষ্ঠায় গুরুতর এসব ভুল দেখা গেছে।

বইটির ৮০ নম্বর পৃষ্ঠায় কবি জসিমউদদীনের ‘বঙ্গবন্ধু’ কবিতাটি পাঠ্য হিসেবে দেয়া হয়েছে। এ কবিতার পাঠ পরিচিতির ৮১ নম্বর পৃষ্ঠার ১০ নম্বর লাইনে উল্লেখ করা হয়েছে,.. ‘১৯৭১-এর ২৬ মার্চ রাতের অন্ধকারে পাকিস্তানি হায়েনারা বাঙালিদের ওপর নির্মমভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ে।’

সঠিক ইতিহাস হচ্ছে, ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ রাতেই পাকিস্তানি হায়েনারা বাঙালিদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। কিন্তু সপ্তাবর্ণায় এ তথ্যটি ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।

অবশ্য হামলার সময় রাত ১২টার পর ২৬ মার্চ পড়ে। কিন্তু ২৫ মার্চ কালরাতই ইতিহাসে প্রতিষ্ঠিত।

একই পৃষ্ঠার ১৪ ও ১৫ নম্বর লাইনটিতেও ভুল তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। বলা হয়েছে, ‘১৯৭১ সালের ১০ই জানুয়ারি পাকিস্তানের কারাগার থেকে বঙ্গবন্ধু মুক্তি পেয়ে তাঁর প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশে প্রত্যাবর্তন করেন এবং দেশগড়ার ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দেন।’

সঠিক ইতিহাস হচ্ছে, বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালের ১০ই জানুয়ারি পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশে প্রত্যাবর্তন করেছিলেন। আর ১৯৭১ সালের ১০ই জানুয়ারি মুক্তযুদ্ধ শুরুর আগে বঙ্গবন্ধু দেশেই ছিলেন।

এসব ভুল তথ্য নিয়ে একদিকে বিপাকে পড়েছেন শিক্ষকরা অপরদিকে অভিভাবকরা সরকারি পাঠ্যবই নিয়ে বিভ্রান্তিতে পড়েছেন।

Facebook Comments