আহাদ (রবিবার), ২৭ নভেম্বর ২০২২

সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা তার বইয়ের মাধ্যমে যা প্রকাশ করেছে তা জাতির জন্য খুবই দুঃখজনক

আর.এফ.এন নিউজ :

সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা তার আত্মজীবনীমূলক বইয়ের মাধ্যমে যা প্রকাশ করেছেন তা জাতির জন্য খুবই দুঃখ ও লজ্জাজনক বলে উল্লেখ করেছেন সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আ্যডভোকেট জয়নুল আবেদীন।

শুক্রবার সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘বর্তমানে বিচার বিভাগ নির্বাহী বিভাগের চাপের মুখে রয়েছে। বিচার বিভাগ সরকারের পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সাবেক প্রধান বিচারপতি তার বইয়ের মাধ্যমে যা প্রকাশ করেছেন তা জাতীর জন্য খুবই দুঃখ ও লজ্জাজনক। যা সর্বোচ্চ আদালতের আইনজীবী হিশেবে আমাদের বিবেককে দংশন করে।

সদ্য প্রকাশিত ‘এ ব্রোকেন ড্রিম: রুল অব ল, হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেমোক্রেসি’ নামে সুরেন্দ্র কুমার সিনহার আত্মজীবনীমূলক এক বই অ্যামাজনের কিন্ডেল সংস্করণে বিক্রি হচ্ছে। ৬১০ পৃষ্ঠার ওই বইয়ের কিছু অংশ গত ১৯ সেপ্টেম্বর অ্যামাজনের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। যেখানে সাবেক এই প্রধান বিচারপতি লিখেছেন যে, কোন প্রেক্ষাপটে তিনি ‘হুমকির মুখে’ দেশ ছেড়েছেন এবং বিদেশ থেকে পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিতে বাধ্য হয়েছেন।

এদিকে এই বই সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে গত ২০ সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, অন্তর জ্বালা থেকেই তিনি মনগড়া ওই বই লিখেছেন। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের ওই মন্তব্যকে উদ্ধৃত করে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন আজ বলেন, ‘হ্যাঁ, তার অন্তরজ্বালা রয়েছে।কারন, বাংলাদেশের বিচার ব্যাবস্থায় তার অনেক অবদান রয়েছে বলেই তার অন্তরজ্বালা থাকতেই পারে।’

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে দেয়া রায় এবং সেই রায়ের কিছু পর্যবেক্ষণকে কেন্দ্র করে ক্ষমতাসীন দলের তীব্র সমালোচনার ‍মুখে ছিলেন সেই সময়ের প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা। গত বছরের ১৩ অক্টোবর ছুটিতে থাকা অবস্থায় তিনি অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে যাত্রা করেন। সে সময় গণমাধ্যমকে দেয়া এক তিনি বিবৃতিতে বলেছিলেন, তিনি অসুস্থ নন, সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন। চাপে নয়, ছুটি কাটাতে স্বেচ্ছায় বিদেশে যাচ্ছেন। তবে তিনি আর ফিরে আসেননি। ছুটিতে থাকার মধ্যেই সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয় প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা পদত্যাগ করেছেন। বিদেশ থেকে তিনি রাষ্ট্রপতির কাছে পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন

Facebook Comments Box