ইয়াওমুস সাবত (শনিবার), ১৭ এপ্রিল ২০২১

সাত কলেজের পিছিয়ে যাওয়া দুই পরীক্ষা হবে ৭ ও ১৩ মার্চ

সাত কলেজের পিছিয়ে যাওয়া দুই পরীক্ষা হবে ৭ ও ১৩ মার্চ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাতটি বড় সরকারি কলেজের দুটি পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। আজ বুধবারের চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষা ও আগামীকাল বৃহস্পতিবারের তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে।

সাত কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম তদারকির দায়িত্বপ্রাপ্ত (ফোকাল পয়েন্ট) ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ আই কে সেলিম উল্লাহ বলেন, ২৪ ফেব্রুয়ারির চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষা আগামী ৭ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। ২৫ ফেব্রুয়ারির তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১৩ মার্চে।

মঙ্গলবার সাত কলেজের অধ্যক্ষ ও সংশ্লিষ্ট তিনজন ডিনকে নিয়ে সভা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি (শিক্ষা) এ এস এস মাকসুদ কামাল। তিনি সাত কলেজের প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করছেন। এ সভাতেই পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত হয়। এরপরই রাতে পরীক্ষা স্থগিত করার প্রতিবাদে রাজধানীর নীলক্ষেত মোড়ে আন্দোলন করেন শিক্ষার্থীরা।

বুধবার দ্বিতীয় দিনের মতো অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। বুধবার সকাল নয়টা থেকে নীলক্ষেত মোড়ে কয়েক’শ শিক্ষার্থী অবস্থান নেন। এ কারণে নিউমার্কেট-আজিমপুর সড়কের উভয় পাশে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে সাত কলেজের অধ্যক্ষ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি মো. আখতারুজ্জামানের সাথে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি অনলাইন বৈঠক করেন। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের চলমান এবং ঘোষিত পরীক্ষাগুলো চলবে। এরপরই শিক্ষার্থীরা বুধবার বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে রাস্তা ছেড়ে দেন। পরে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

এর আগে গত সোমবার অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানান, রোজার ঈদের পর আগামী ২৪ মে থেকে দেশের সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আবারো শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হবে। তার আগে ১৭ মে আবাসিক হলগুলো খুলবে। খোলার আগে কোনো পরীক্ষা হবে না। যেসব বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা ও হল খোলার ঘোষণা দিয়েছিল, সেই সিদ্ধান্তও বাতিল হবে। অবশ্য অনলাইনে ক্লাস চলবে।

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয় ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজ ও সরকারি তিতুমীর কলেজ। এই কলেজগুলোয় মোট শিক্ষার্থী প্রায় দুই লাখ।

Facebook Comments