ইয়াওমুল আরবিয়া (বুধবার), ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

রাজারবাগ শরীফে ৬৩ দিনব্যাপী মাহফিল

রাজারবাগ শরীফে ৬৩ দিনব্যাপী মাহফিল

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা রাজারবাগ দরবার শরীফে শুরু হতে যাচ্ছে ৬৩ দিনব্যাপী বিশেষ মাহফিল। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খ্বতামুন্ নাবিয়্যীন, রহমতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক সম্মানার্থে অনন্তকালব্যাপী জারীকৃত পবিত্র সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ মাহফিল উনার মধ্যে বিশেষ আয়োজন হিসেবে এই ৬৩ দিনব্যাপী মাহফিল উনার আয়োজন করা হয়েছে। মুসলিম উম্মাহ সকলের উচিত উক্ত বেমেছাল বরকতময় মাহফিলে অংশগ্রহণ করা।

আগামী ২৮শে মুহররম শরীফ মুতাবিক ৬ সেপ্টেম্বর হতে রাজারবাগ দরবার শরীফে শুরু হতে যাওয়া ৬৩ দিনব্যাপী বিশেষ মাহফিলের দাওয়াত প্রসঙ্গে আজ জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা এসব কথা বলেন। এ সময় সমস্ত মুসলিম উম্মাহকে উক্ত মাহফিলে অংশগ্রহণের দাওয়াত দেন পবিত্র রাজারবাগ দরবার শরীফ উনার প্রতিনিধিবৃন্দ।

পবিত্র রাজারবাগ দরবার শরীফ উনার প্রতিনিধি হিসেবে সেমিনারে আলোচনা করেন, মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ উনার নির্বাহী সম্পাদক, মুফতিয়ে আ’যম আল্লামা আবুল খায়ের মুহম্মদ আযীযুল্লাহ ছাহেব এবং ঐতিহ্যবাহী মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ মাদরাসার মুহতামিম, আল্লামা মুফতি মুহম্মদ আলমগীর হুসাইন ছাহেব প্রমুখ।

পবিত্র রাজারবাগ দরবার শরীফ উনার প্রতিনিধি হিসেবে মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ গবেষণাগারের অন্যতম গবেষক আল্লামা মুহম্মদ আলমগীর হুসাইন ছাহেব উনার আলোচনায় বলেন, অনন্তকালব্যাপী জারিকৃত সুমহান সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ মাহফিলের প্রতিষ্ঠাতা-পৃষ্ঠপোষক এবং প্রধান অতিথি হচ্ছেন, মুজাদ্দিদে আযম, সুলতানুন নাছীর, আহলু বাইতি রসুলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ঢাকা রাজারবাগ শরীফের মহাসম্মানিত শায়েখ, সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুরশিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম। সুবহানাল্লাহ। যা আগামী ২৮শে মুহররম শরীফ মুতাবিক ৬ সেপ্টেম্বর থেকে প্রতিদিন বাদ আছর এই বরকতময় বেমেছাল মাহফিল শুরু হবে। একইসাথে সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূর পবিত্র রবীউল আউওয়াল শরীফ মাস জুড়ে রাজারবাগ শরীফস্থ মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ বালিকা মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে প্রতিদিন বাদ যুহর মহিলাদের খাছ পর্দার সহিত বিশেষ তালীম প্রদান করবেন সাইয়্যিদাতুন নিসা, ফক্বীহাতুন নিসা, আহলু বাইতি রসুলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম তিনি। সুবহানাল্লাহ।

আল্লামা মুহম্মদ আলমগীর হুসাইন ছাহেব তিনি পবিত্র সূরা ইউনুস শরীফ উনার ৫৭ ও ৫৮ নম্বর আয়াত শরীফ তিলাওয়াত করে বলেন, এ দুই পবিত্র আয়াত শরীফের মাধ্যমে মহান আল্লাহ পাক তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে পাওয়ার জন্য আমাদের সবাইকে শুকরিয়া স্বরূপ খুশি প্রকাশ তথা সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ পালন করতে আদেশ করেছেন। সুবহানাল্লাহ।

একই সাথে তিনি বলেন, পবিত্র সূরা আহযাব শরীফের ৫৬ নম্বর আয়াত শরীফে রয়েছে, মহান আল্লাহ পাক তিনি নিজে সমস্ত ফিরিশতাগণকে নিয়ে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক সম্মানার্থে সবসময় সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ পালন করছেন। সুবহানাল্লাহ।

পবিত্র রাজারবাগ দরবার শরীফ উনার প্রতিনিধি হিসেবে মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ উনার নির্বাহী সম্পাদক মুফতিয়ে আ’যম আবুল খায়ের মুহম্মদ আযীযুল্লাহ ছাহেব বলেন, আসন্ন সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহুর পবিত্র রবীউল আউওয়াল শরীফ মাস এবং সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ উপলক্ষে ঢাকা রাজারবাগ দরবার শরীফে ৬৩ দিনব্যাপী বিশেষ মাহফিল আয়োজন করা হয়েছে। যেখানে ৩০ দিনব্যাপী প্রতিযোগীতা মাহফিল, ৩০ দিনব্যাপী ওয়াজ শরীফ মাহফিল এবং ৩ দিনব্যাপী সুন্নতি সামা’ শরীফ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

মুফতিয়ে আ’যম আবুল খায়ের মুহম্মদ আযীযুল্লাহ ছাহেব বলেন, সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ দিনের বেলা ঢাকা রাজারবাগ দরবার শরীফ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হবে কোটি কোটি কণ্ঠে পবিত্র মীলাদ শরীফ মাহফিল, যা ইন্টারনেটের মাধ্যমে সারা বিশ্বে এক যোগে সম্প্রচারিত হবে এবং কোটি কোটি মানুষ অনলাইন ও অফলাইনের মাধ্যমে সারা বিশ্ব হতে সেখানে অংশগ্রহণ করবে। কোটি কোটি কণ্ঠে পবিত্র মীলাদ শরীফের পর শহর প্রদক্ষিণ করে ঢাকা শহর জুড়ে বিতরণ হবে ৬৩ হাজার তাবারুকের প্যাকেট। একই সাথে দেশের প্রতি জেলায় এবং বিশ্বের বহু দেশে তাবারুক বিতরণ করা হবে। একই সাথে সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক আক্বীক্বাহ উপলক্ষে দেশের সবচেয়ে বড় গরু, মহিষ ও খাসীসহ শত শত গরু এবং খাসী জবাই করা হবে।

মুফতিয়ে আ’যম আবুল খায়ের মুহম্মদ আযীযুল্লাহ ছাহেব বলেন, সমস্ত কায়িনাতের উচিত রহমতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এ বিশেষ মাহফিলে শরীক ও উপস্থিত থেকে বিশেষ নিয়ামত, রহমত, বরকত ও সাকিনা লাভ করা।

সংবাদ সম্মেলনে আলোচকরা, “রহমতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের মুবারক শানে বেয়াদবি করার শরয়ী শাস্তি মৃত্যুদণ্ড”, এই আইন জারি করার আহবান জানান।

Facebook Comments Box