ইয়াওমুল আহাদ (রবিবার), ০৯ মে ২০২১

মৎস্য চাষিদের নগদ প্রণোদনা দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক: মৎস্যচাষিদের নগদ প্রণোদনা দেয়ার দাবি জানিয়েছে জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দল। সংগঠনের কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব আব্দুর রহিম স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়। বুধবার জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম মাহতাব এবং সদস্য সচিব আব্দুর রহিম এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, এক বছরে মাছের দাম বেড়েছে তিন দফা। প্রায় প্রতি টনে ৩৫০০ টাকা, অর্থাৎ এক কেজি মাছ উৎপাদনে খরচ পড়ে ৯৫-৯৮ টাকা। আর মাছ বিক্রি করে প্রতি কেজিতে ৭০-৮৫ টাকা পাওয়া যাচ্ছে। মাছের দাম কমতে কমতে এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, লাখ লাখ মৎস্যচাষিরা আজ ঋণে ক্লান্ত। এমনকি বেঁচে থাকার আশাটুকুও হারিয়ে ফেলেছে। মৎস্যচাষিদের দুরবস্থা বিবেচনা করে তাদেরকে নগদ প্রণোদনা, ঋণ পুণঃতফসিল ও সুদ মওকুফের মাধ্যমে পুনরুজ্জীবিত করার যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করে তা সচল ও মাছ উৎপাদনে ধারাবাহিকতা রক্ষা জরুরি।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, মৎস্য থেকে আমাদের ৭০% আমিষের চাহিদা পূরণ হয়ে থাকে এবং মাছ বিদেশে রফতানির মাধ্যমে জিডিপিতে প্রায় ৯ ভাগ অর্থ যুক্ত হয়। প্রায় আড়াই কোটি মানুষ বিভিন্নভাবে মৎস্যখাতের সঙ্গে যুক্ত আছে, যা বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার ১০ ভাগ। বৃহত্তর বেকার কর্মসংস্থানের মাধ্যমে বাংলাদেশের অর্থ ও সামাজিক উন্নয়নে মৎস্য খাতের অবদান অনস্বীকার্য। ভাতে-মাছে বাঙালি খ্যাত বাংলাদেশে ভাতের পরেই মাছের স্থান এবং বৈদেশিক আয়ের মাধ্যমে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে।

Facebook Comments Box