খামিছ (বৃহস্পতিবার), ৩০ মে ২০২৪

বন্দরকে শক্তিশালী করার দাবি চট্টগ্রাম চেম্বার নেতাদের

নিউজ ডেস্ক : দেশের ভারসাম্যপূর্ণ উন্নয়ন প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখতে এবং বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের বিপুল সম্ভাবনা কাজে লাগাতে চট্টগ্রাম বন্দরকে শক্তিশালী করার দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম চেম্বারের নেতারা। গতকাল সোমবার ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সঙ্গে বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের ৮টি চেম্বারের এক সভায় এ দাবি করেন তারা। এফবিসিসিআই এর সাবেক প্রথম সহ-সভাপতি এবং চট্টগ্রাম উইমেন চেম্বারের সভাপতি মনোয়ারা হাকিম আলী বলেন, চট্টগ্রাম অঞ্চলে ব্যাপক শিল্পায়ন অত্যন্ত জরুরি। সুষ্ঠুভাবে ব্যবসা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ব্যাংক ঋণের সুদের হার একক অংকে নামিয়ে আনারও দাবি জানান তিনি। চট্টগ্রাম অঞ্চলের পর্যটন শিল্প এবং চট্টগ্রাম বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধির প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন তিনি।
এফবিসিসিআই সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিমের সভাপতিত্বে চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ হোটেলে অনুষ্ঠিত এ সভায় এফবিসিসিআই পরিচালকরাসহ চট্টগ্রাম অঞ্চলের চেম্বারগুলোর সভাপতিরা অংশ নেন। এসময় শেখ ফজলে ফাহিম পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনে বলেন, সরকারের ৮ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বিবেচনায় রেখে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশে রূপান্তরের লক্ষ্যে দেশের বেসরকারি খাত কাজ করে যাচ্ছে। দেশের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের নানা সমস্যা নিয়ে আলোচনার জন্য এফবিসিসিআই সারা দেশের চেম্বারগুলোর সাথে আলোচনার এ উদ্যোগ নিয়েছে। বর্তমান সরকারের ভিশন ২০৪১ অনুসরণে এফবিসিসিআইয়ের ভিশন ২০৪১-এর উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক নানা বিষয়ে নীতিগত সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে ‘এফবিসিসিআই ইন্সটিটিউট ফর ইকনোমিক পলিসি প্ল্যানিং অ্যান্ড ডিজাইন’ প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। এফবিসিসিআইয়ের উদ্যোগে প্রকৌশল ও কারিগরি প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির লক্ষ্যে ‘এফবিসিসিআই ইনস্টিটিউট’ প্রতিষ্ঠার প্রক্রিয়া চলছে।
তিনি জানান, পূর্বাচলে সরকারের দেয়া ১ একর জমির ওপর ‘এফবিসিসিআই আইকন’ ভবন নির্মাণ করা হবে, যেখান থেকে আগামী দিনের এফবিসিসিআই দেশের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের নেতৃত্ব দেবে। এছাড়াও এফবিসিসিআই সভাপতি বাণিজ্যিক সবধরনের বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য ‘এফবিসিসিআই আর্বিট্রেশন সেন্টার’ প্রতিষ্ঠার কথা উল্লেখ করেন।
বান্দরবান চেম্বার অব কমার্সের সহ-সভাপতি লক্ষীপদ বলেন, দেশের অর্থনৈতিক পরিকল্পনা প্রণয়নে পার্বত্য জেলাগুলোর সম্পদ ও সম্ভাবনাকে গুরুত্ব দিতে হবে। চট্টগ্রাম চেম্বারের সাবেক পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ্ দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে যুগোপযোগী শিক্ষা ব্যবস্থার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি এফবিসিসিআইয়ের প্রতিনিধিদল বিদেশ সফরের সময় সংশ্লিষ্ট সকল খাতের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার অনুরোধ জানান। বাংলাদেশ শিপিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের পরিচালক ওসমান গণি ব্যাংক ঋণের সুদের হার একক অংকে নামিয়ে আনতে বেসরকারি ব্যাংকসমূহের পরিচালনা ব্যয় হ্রাস করার ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করেন।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে এফবিসিসিআই পরিচালক মো. বজলুর রহমান, হাসিনা নেওয়াজ, মো. কোহিনুর ইসলাম, মো. আনোয়ার সাদাত সরকার, প্রবীর কুমার সাহা, মো. রেজাউল করিম রেজনু, তাবারুকুল তোসাদ্দেক হোসেন খান টিটু, মাসুদ পারভেজ খান (ইমরান), মো. নিজাম উদ্দিন, আলহাজ আজিজুল হক, সজীব রঞ্জন দাস এবং চট্টগ্রাম অঞ্চলের সকল চেম্বারের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments Box