ইসনাইন (সোমবার), ০৪ জুলাই ২০২২

পরীক্ষামূলক ‘বকেয়া মেসেজ’, ভোগান্তিতে তিতাসের গ্রাহক

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর মালিবাগের বাসিন্দা নাহিদ হাসান। তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন ও ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের গ্রাহক তিনি। নিয়মিত বিল পরিশোধ করে আসছেন। মঙ্গলবার (২৪ মে) হঠাৎ তার মোবাইলে তিতাস গ্যাস থেকে এসএমএস আসে। সেখানে এক লাখ টাকার গ্যাস বিল বকেয়া জানিয়ে দ্রুত তা পরিশোধের তাগিদ দেওয়া হয়। মেসেজ দেখে নাহিদের চোখ ছানাবড়া। দ্রুত ছুটে যান তিতাস গ্যাসের মতিঝিল আঞ্চলিক কার্যালয়ে।

তবে তিতাসের কার্যালয়ে এসে জানতে পারেন, তার কোনো বকেয়া নেই। তিতাস গ্যাসের নতুন সফটওয়্যার ট্রায়াল দিতে গ্রাহকদের এমন এসএমএস পাঠানো হচ্ছে। বিল বকেয়া নেই জেনে স্বস্তি মিললেও হয়রানির শিকার হওয়ায় ক্ষোভ জানান নাহিদ।

শুধু নাহিদ নন, তিতাস গ্যাসের মতিঝিল আঞ্চলিক কার্যালয়ের অন্তত ৫০ হাজার গ্রাহকের কাছে এমন ‘ভুয়া’ এসএমএস পাঠানো হয়েছে। বকেয়ার অঙ্কও মনগড়া, যা দেখে অনেকেই ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে ছুটে এসেছেন তিতাসের মতিঝিল কার্যালয়ে।

তবে তিতাসের কর্মকর্তারা বলছেন, ইচ্ছে করেই এমন এসএমএস দেওয়া হয়েছে। নতুন সফটওয়্যার ট্রায়ালের সময় সবার কাছে এমন এসএমএস চলে গেছে। এ সফটওয়্যারে আপডেট তথ্য নেই সেজন্য এটা কোনো সমস্যা নয়।

তিতাস সূত্রে জানা গেছে, মতিঝিল আঞ্চলিক কার্যালয়ের আওতায় তিতাসের গ্রাহক ৭২ হাজার। তাদের মধ্যে যাদের মোবাইল নম্বরসহ তথ্য সফটওয়্যারে সেভ করা আছে, তাদের কাছে এ ধরনের এসএমএস গেছে। সফটওয়্যারে অন্তত ৫০ হাজার গ্রাহকের নম্বর সেভ। অর্থাৎ এ ৫০ হাজার গ্রাহকের মোবাইলে বকেয়ার এসএমএস গেছে।

Facebook Comments Box