ইয়াওমুস সাবত (শনিবার), ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১

দুর্নীতিতে দক্ষিণ এশিয়ায় দ্বিতীয় বাংলাদেশ

দুর্নীতিতে দক্ষিণ এশিয়ায় দ্বিতীয় বাংলাদেশ

নিউজ ডেস্ক: দুর্নীতির ধারণা সূচকে নিচের দিক থেকে দুই ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ। ২০১৯ সালে দুর্নীতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৪তম। ২০২০ সালে তা দুই ধাপ এগিয়ে ১২তে এসেছে। বার্লিনভিত্তিক দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআই) এ সূচক প্রকাশ করেছে। বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকায় টিআই বাংলাদেশ (টিআইবি) সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

সংবাদ সম্মেলনে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান জানান, ২০২০ সালে বাংলাদেশ ২৬ স্কোর পেয়ে নিচের দিক থেকে ১২তম অবস্থানে এসেছে। একই স্কোর পেয়ে বাংলাদেশের পাশে আছে সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ও উজবেকিস্তান। এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চেলে বাংলাদেশ চতুর্থ সর্বনিম্ন এবং দক্ষিণ এশিয়ায় দ্বিতীয় সর্বনিম্ন।

টিআই’র প্রতিবেদনে বলা হয়, দুর্নীতির ধারণা সূচকে উপরের দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান ১৪৬।

৮৮ স্কোর পেয়ে সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় রয়েছে ডেনমার্ক ও নিউজিল্যান্ড। আর সর্বনিম্ন ১২ স্কোর পেয়ে যৌথভাবে সর্বনিম্ন ১৭৯ নম্বর অবস্থানে রয়েছে দক্ষিণ সুদান ও সোমালিয়া।

২০১২ থেকে ১৬টি দেশ উন্নতি করেছে। এরমধ্যে রয়েছে গ্রিস, মিয়ানমার, ইকুয়েডর। অবনতি হয়েছে লেবানন, মালাওয়ি, বসনিয়া ও হারজেগভিনাসহ ২২টি দেশের। ৪০ স্কোর পেয়ে ৮৬তম অবস্থানে রয়েছে ভারত এবং ৩১ স্কোর পেয়ে ১২৪ তম অবস্থানে আছে পাকিস্তান। দক্ষিণ এশিয়ায় ১৯ স্কোর পেয়ে দুর্নীতিতে প্রথম অবস্থানে এসেছে আফগানিস্তান। আর এই অঞ্চলে বাংলাদেশের অবস্থান দ্বিতীয়।

টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, দুর্নীতির ধারণা সূচক অনুযায়ী বাংলাদেশের অবস্থান হতাশাজনক। এর পেছনে মূল কারণ, দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের অবস্থান শুধু অঙ্গীকারের মধ্যে সীমাবদ্ধ। কারও প্রতি ভয়-করুণা না করে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নের আহ্বান জানান টিআইবির নির্বাহী পরিচালক।

Facebook Comments