ইয়াওমুস সাবত (শনিবার), ২৪ জুলাই ২০২১

তরমুজের বীজেই দূর হবে হৃদরোগ-ডায়াবেটিস

তরমুজের বীজেই দূর হবে হৃদরোগ-ডায়াবেটিস

স্বাস্থ্য ডেস্ক: বাজারে এখন তরমুজের ছড়াছড়ি। লাল টুকটুকে রসালো এ ফলটি ছোট-বড় সবারই পছন্দের। শরীরের পানির অভাব পূরণে এ ফল বিশেষ ভূমিকা রাখে। একটি তরমুজের মধ্যে ৯৮ ভাগই পানি থাকে।

গরমে ঠান্ডা তরমুজ খাওয়ার মজাই আলাদা। যেন এক স্বর্গীয় তৃপ্তি অনুভূত হয়। বেশিরভাগ সময়ই সবাই তরমুজ খেয়ে এর বীজ ফেলে দিয়ে থাকেন। জানেন কি, এ বীজে লুকিয়ে আছে কত উপকারিতা।

জানলে হয়তো এরপর থেকে আর এ বীজ ফেলে দিবেন না। হৃদরোগ এমনকি ডায়াবেটিসের মতো দীর্ঘমেয়াদি রোগও নিয়ন্ত্রণে আনে তরমুজের বীজে থাকা গুনাগুণ।

গবেষকরা বলছেন, তরমুজের বীজে এমন এক রাসায়নিক থাকে, যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে অত্যন্ত কার্যকরী। তাছাড়া তরমুজের বীজে থাকা একাধিক খনিজ গর্ভবতী নারীর স্বাস্থ্যের জন্য বিশেষ উপকারী।

তরমুজের বীজে থাকে- প্রোটিন, ভিটামিন, ওমেগা-৩ এবং ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিড, ম্যাগনেসিয়াম, দস্তা, তামা, পটাসিয়াম এবং আরও অনেক পুষ্টি উপাদান। জেনে নিন তরমুজের বীজ খেলে যেসব রোগ থেকে মুক্তি পাবেন-

>> তরমুজের বীজে থাকা ম্যাগনেসিয়াম হার্টের কার্যক্ষমতা বাড়ায়। সেই সঙ্গে হঠাৎ হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকিও কমে। এ ছাড়াও তরমুজের বীজে থাকে সিটরুলিন নামক উপাদান। যা অ্যারোটিক ব্লাড প্রেসার কমিয়ে হৃদযন্ত্রকে সুরক্ষিত রাখে।

>> এ করোনাকালে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর বিকেল্প নেই। পরিমাণ মতো তরমুজের বীজের গুঁড়ো পান করলে শরীরে আয়রন এবং ভিটামিন বি-এর ঘাটতি কমে। অ্যানিমিয়া বা রক্তশূন্যতায় আক্রান্ত রোগীরা এ উপায়ে সুফল পেতে পারেন।

>> বন্ধ্যাত্ব নারী বা পুরুষ উবয়ের ক্ষেত্রেই হতে পারে। জানেন কি? তরমুজের বীজে থাকা জিঙ্ক স্পার্ম কাউন্ট বাড়াতেও বিশেষ ভূমিকা রাখে।

>> ডায়াবেটিস রোগী এখন প্রায় প্রত্যেক ঘরে ঘরেই আছে। তাদের জন্য এ বীজ বিশেষ উপকারী। সম্প্রতি এক ইরানিয়ান স্টাডি অনুসারে, তরমুজের বীজে এমন কিছু উপাদান আছে, যা শরীরে প্লাজমা গ্লুকোজের মাত্রা কমায়। এ কারণে ডায়াবেটিস ধারে কাছেও ঘেঁষতে পারে না।

>> হজম ক্ষমতা বাড়াতেও কার্যকরী ভূমিকা রাখে তরমুজের বীজ। এতে থাকা জিঙ্ক এবং ম্যাগনেসিয়াম হজমে সহায়ক অ্যাসিডের ক্ষরণ বাড়িয়ে দেয়। এ কারণে বদহজম ও গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা কমতে শুরু করে।

>> তরমুজের বীজের গুঁড়ো এক কাপ হালকা গরম পানিতে মিশিয়ে খেলে আপনার অ্যানার্জি বাড়বে। শরীরে মুহূর্তেই জোগাবে শক্তি।

>> অস্টিওপোরোসিস প্রতিরোধে কাজ করে এ বীজ। নিয়মিত খেলে হাড়ের ঘনত্ব বাড়ে এবং দুর্বলতা কমে।

>> চুলের জন্যও ভালো তরমুজের বীজ। এতে আছে প্রোটিন, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম এবং কপার। প্রোটিন চুলের বৃদ্ধি ঘটায়। ম্যাগনেসিয়াম চুলে আগা ফাটা ও ভেঙে পড়া রোধ করে। কপার মেলানিন উৎপাদন করে, ফলে চুল হয় রেশমি কোমল।

>> ত্বকের ব্রণ কমাতে সাহায্য করে এ বীজে থাকা পুষ্টিগুণ। এ ছাড়াও ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করে নিস্তেজতা রোধ করে। পাশাপাশি বলিরেখা দূর করে। ফলে ত্বক থাকে টানটান।

Facebook Comments Box