ইয়াওমুল আরবিয়া (বুধবার), ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

জগন্নাথে দুর্বল ওয়াই-ফাই, ভোগান্তিতে শিক্ষার্থীরা

আধুনিক বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য ইন্টারনেট সেবার বিকল্প নেই। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চমানের ইন্টারনেট সংযোগের সুবিধা থাকলেও এ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ক্যাম্পাসে ওয়াই-ফাই (ইন্টারনেট) সেবা থাকলেও দুর্বল ফ্রিকোয়েন্সির কারণে বিড়ম্বনায় পড়ছেন শিক্ষার্থীরা।

ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় গড়ার লক্ষে ২০১২ সালে সম্পূর্ণ ক্যাম্পাসকে ওয়াই-ফাই (ইন্টারনেট) নেটওয়ার্কের আওতায় আনে প্রশাসন। কিন্তু পুরো ক্যাম্পাসজুড়ে ওয়াই-ফাই জোন করার ঘোষণা দিলেও বাস্তবে তা সীমাবদ্ধ রয়েছে নির্দিষ্ট কয়েকটি স্থানে। তাছাড়া সংযোগটি খুব ধীরগতিসম্পন্ন। দুর্বল ফ্রিকোয়েন্সির কারণে প্রায়ই সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থীরা দিন দিন তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার থেকে পিছিয়ে যাচ্ছেন। এতে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিরাজ করছে ক্ষোভ আর হতাশা।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে যে ওয়াই-ফাই আছে তা আসলে অকার্যকর। অনেক সময়ই এর নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় না। অন্যদিকে বিভাগীয় ওয়াই-ফাইগুলোতে পাসওয়ার্ড সিস্টেমের কারণে শিক্ষার্থীরা ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারছেন না। এছাড়া ক্যাম্পাসে সহজেই ওয়াইফাই কানেকশন পাওয়ার কথা থাকলেও সর্বত্র ইন্টারনেট কাজ না করায় শিক্ষার্থীদেরকে পড়তে হচ্ছে বিপাকে।

এ বিষয়ে গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী শামীম আহমেদ ঢাকাটাইমসকে বলেন, ক্যাম্পাসে ওয়াই-ফাই এর নেটওয়ার্ক খুবই দুর্বল। নামমাত্র ওয়াই-ফাই সুবিধা রয়েছে, কাজের বেলায় শূন্য। এর ফলে আমরা তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার থেকে পিছিয়ে পড়ছি।

সিএসই বিভাগের সারোয়ার নামের এক শিক্ষার্থী অভিযোগ করে ঢাকাটাইমসকে বলেন, প্রথম দিকে ওয়াই-ফাই এর নেটওয়ার্ক কাজ করলেও এখন ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকার পরও আমরা নেটওয়ার্ক পাই না।

কী ধরনের সমস্যা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ওয়াইফাই ওপেন করলেই লিমিট একসেস দেখায়। যার করণে নেটওয়ার্ক দেখা গেলেও আমরা তা ব্যবহার করতে পারি না।

বিশ্ববিদ্যালয় আইটি সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সর্বনিম্ন ৫১২ কিলোবাইট থেকে সর্বোচ্চ ২ মেঘাবাইট গতিতে ৫০টি কম্পিউটারের মাধ্যমে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করে কাজ সম্পন্ন করতে পারবে। কিন্তু বাস্তবে তা সম্ভব হচ্ছে না।

এ বিষয়ে নেটওয়ার্কিং ও আইটি দপ্তরের পরিচালক ড. উজ্জল কুমার আচার্য্য ঢাকাটাইমসকে বলেন, ক্যাম্পাসে আমাদের যে ওয়াই-ফাই ব্যবস্থার সমস্যা আছে তা ঠিক করার কাজ চলছে, আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে বিশ্ব ব্যাংকের সহয়তায় ‘স্টাবলিশম্যান্ট অফ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস নেটওর্য়াক’ নামে একটি উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ রয়েছে। কাজ শেষ হলে আমাদের ওয়াই-ফাই ব্যবস্থা আরও উন্নত হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভিসি প্রফেসর ড. মিজানুর রহমান ঢাকাটাইমসকে বলেন, বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় ক্যাম্পাস উন্নয়ন একটি প্রজেক্ট আছে, সেটার কাজ শেষ হলে ওয়াই-ফাই ব্যবস্থার সমস্যা থাকবে না।

Facebook Comments Box