আহাদ (রবিবার), ২২ মে ২০২২

এবার দুইটি ভূগর্ভস্থ ক্ষেপণাস্ত্র-ড্রোন ঘাঁটি চালু করলো ইরান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরান দুইটি ভূগর্ভস্থ ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন ঘাঁটি চালু করেছে। আইআরজিসি দিবসকে সামনে রেখে এসব ঘাঁটির উন্মোচন করেছেন বাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি।

জানা গেছে, উঁচু পাহাড়ের অভ্যন্তরে এসব ঘাঁটি নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে রাখা হয়েছে ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য বিভিন্ন পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন। এসব ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন সহজেই শত্রুর রাডার ও ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী ব্যবস্থাকে ফাঁকি দিতে সক্ষম।

আইআরজিসির অ্যারোস্পেস ফোর্স এই প্রথম ড্রোনের ভূগর্ভস্থ ঘাঁটি উন্মোচন করলো। এখানে দুই হাজার কিলোমিটার পাল্লার ড্রোনও রয়েছে। এছাড়া এই ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের দুইটি প্লাটফর্ম ও ড্রোন উৎক্ষেপণের কয়েকটি প্লাটফর্ম রয়েছে।

আইআরজিসির কমান্ডার সালামি ঘাঁটি দুইটি উন্মোচনের পর সেগুলো ঘুরে দেখেছেন ও সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেছেন। এ সময় তার কাছে বিস্তারিত প্রতিবেদন হস্তান্তর করেন অ্যারোস্পেস ফোর্সের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির আলী হাজিজাদেহ

তাছাড়া গত মাসে ইরানের আইআরজিসি নতুন একটি কৌশলগত ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন করে। অত্যন্ত ক্ষিপ্র গতিতে ও নিখুঁতভাবে ক্ষেপণাস্ত্রটি এক হাজার ৪৫০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে অর্থাৎ ইসরায়েল, উপসাগরীয় অঞ্চল ও মধ্যপ্রাচ্যর মার্কিন ঘাঁটিগুলোতে আঘাত হানতে সক্ষম।

বুধবার (৯ ফেব্রুয়ারি) একটি অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে খাইবার শেখান নামের এ কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্রটি উন্মোচন করা হয় যেখানে উপস্থিত ছিলেন ইরানের সামরিক বাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল মোহাম্মদ বাকেরি ও আইআরজিসি অ্যারোস্পেস ডিভিশনের প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির আলী হাজিজাদেসহ ইরানের সামরিক বাহিনীর উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা।

সূত্র: প্রেস টিভি, পার্সটুডে

Facebook Comments Box