ইয়াওমুল জুমুআ (শুক্রবার), ০৫ মার্চ ২০২১

ঋণখেলাপিরা হাজির না হলে গ্রেফতার করে আনা হবে -হাইকোর্ট

ঋণখেলাপিরা হাজির না হলে গ্রেফতার করে আনা হবে -হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক: পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড থেকে ৫ লাখ টাকা ও তার বেশি ঋণখেলাপিদের ২৮০ জনকে তলব করেছিলো হাইকোর্ট। সে অনুযায়ী গতকাল আদালতে উপস্থিত হয়েছিলো ৫১ ঋণলেখাপি।

তলবের পরও গতকাল নির্ধারিত দিনে ১৪০ জনের মধ্যে ৫১ জন উপস্থিত হলেও অন্য খেলাপিরা নির্ধারিত দিনে উপস্থিত না হওয়ায় আদালত ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। এ সময় আদালত জানায়, আজ যারা উপস্থিত হননি। তারা হাজির হওয়ার জন্য আর একবার সুযোগ পাবেন, তারা যদি হাজির না হন প্রয়োজনে তাদের গ্রেফতার করে আদালতে আনা হবে।

মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারক মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের একক বেঞ্চ এমন মন্তব্য করে।

আইনজীবীরা জানান, আদালতের আদেশ অনুযায়ী আজ ১৪০ জন ঋণখেলাপির হাজির হওয়ার কথা ছিল। সেখানে ৫১ জন হাজির হয়েছিলো। বিষয়টি নজরে আসার পর হাইকোর্ট বলেছে, আদালতের তলবে যারা আজকে আসেননি, তাদের আরেকবার সুযোগ দেয়া হবে। এরপরও তারা আদালতে হাজির না হলে প্রয়োজনে গ্রেফতার করে কোর্টে হাজির করা হবে। গত ২১ জানুয়ারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড থেকে পাঁচ লাখ টাকা ও তার বেশি ঋণ নিয়ে খেলাপি হওয়া এমন ২৮০ ব্যক্তিকে তলব করেছিলো হাইকোর্ট।

সশরীরে আদালতে হাজির হওয়ার পাশাপাশি এই ২৮০ জনকে ঋণখেলাপি হওয়ার কারণ দর্শাতেও বলেছিলো আদালত। ঋণ গ্রহণ ও খেলাপের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয় এই ২৮০ জনকে। ২১ জানুয়ারি হাইকোর্টের বিচারক মুহম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের একক বেঞ্চ এ আদেশ দেয়। আদালতে ওইদিন বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষে শুনানি করেন কাজী এরশাদুল আলম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আব্দুল ওয়াহাব। কোম্পানির পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মেজবাহুর রহমান। এরপর ২৩ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি তাদের পর্যায়ক্রমে আদালতে হাজির হয়ে ঋণ ও তা পরিশোধের বিষয়ে ব্যাখ্যা জানাতে বলা হয়। আদালতের আদেশ অনুযায়ী আজ ১৪০ জন ঋণখেলাপির হাজির হওয়ার কথা ছিল।

Facebook Comments