সাবত (শনিবার), ২০ এপ্রিল ২০২৪

ইসরায়েলি নির্যাতনের প্রতিবাদে ফিলিস্তিনি বন্দিদের অনশন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইসরায়েলে বন্দি শত শত ফিলিস্তিনি অনির্দিষ্টকালের জন্য অনশন শুরু করেছে বলে জানিয়েছে একটি মানবাধিকার সংস্থা। স্থানীয় সময় গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় ইসরায়েলের সব কারাগারের প্রায় এক হাজার বন্দি অনশন শুরু করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফিলিস্তিনি প্রিজনার্স প্রেস অফিসের পরিচালক আহমেদ আল কুদরা। তিনি জানান, ইসরায়েলি কারা প্রশাসনের আগ্রাসনের প্রতিবাদে অনশন শুরু করেছে।

বন্দিদের সমর্থন করতে সংঘবদ্ধ হয়ে রাস্তায় নেমে আসতে অধিকৃত পশ্চিম তীরে বসবাসকারী ফিলিস্তিনিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন কুদরা।

মানবাধিকার সংস্থাগুলোর একটি আলাদা যৌথ বিবৃতি অনুসারে, দক্ষিণ ইসরায়েলের নেগেভ কারাগারে অভিযান চালিয়ে বন্দিদের অন্য এলাকায় স্থানান্তর করার পর উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ এখনো এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেনি।

ফিলিস্তিনি পরিসংখ্যান অনুসারে, ইসরায়েলি কারাগারে অন্তত ৫ হাজার ফিলিস্তিনি বন্দি রয়েছেন। তাদের মধ্যে অন্তত ১২০০ জনকে অভিযোগ বা বিচার ছাড়াই বন্দি রাখা হয়েছে।
ইসরায়েলের কারাগারে বন্দি ফিলিস্তিনিরা বছরের পর বছর ধরে উন্নত জীবনযাপনের পাশাপাশি অনির্দিষ্টকালের জন্য আটকের অবসানের দাবিতে বিক্ষোভ করে আসছে।
গত ১৫ মাসে অধিকৃত পশ্চিম তীরে সহিংসতার মধ্যে ক্রমবর্ধমান ইসরায়েলি অভিযান, ফিলিস্তিনি গ্রামে ইহুদি বসতি স্থাপনকারীদের তাণ্ডবের মধ্যেই অনশন কর্মসূচিটি আসে। জাতিসংঘের একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, জানুয়ারি থেকে সংঘর্ষে কমপক্ষে ১৯৬ ফিলিস্তিনি এবং ২৪ জন ইসরায়েলে নিহত হয়েছে।

১৯৬৭ সালের আরব—ইসরায়েল যুদ্ধের পর লাখ লাখ ফিলিস্তিনিকে সামরিক শাসনের অধীনে নিয়ে নেয় ইসরায়েল। শুধু তাই নয়, ইসরায়েলিরা সেখানে বসতি নির্মাণ অব্যাহত রাখে। ইসরায়েলের এমন আচরনের নিন্দা জানাচ্ছে বেশিরভাগ দেশ।

পশ্চিম তীর, গাজা এবং পূর্ব জেরুজালেম নিয়ে একটি স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় শান্তি আলোচনা ২০১৪ সালে ভেঙে পড়লে, তা পুনরায় শুরুর আর কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

Facebook Comments Box