ইয়াওমুস ছুলাছা (মঙ্গলবার), ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

আজ রেলওয়ের ‘বিশেষ সেবা’ সপ্তাহ শুরু

আর.এফ.এন নিউজ :

বাংলাদেশের এলডিসি স্ট্যাটাস থেকে উত্তরণের লক্ষ্যে এবং দেশব্যাপী ২০-২৫ মার্চ বিশেষ সেবা সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষে রেলওয়ের বিশেষ সপ্তাহ শুরু হচ্ছে আজ মঙ্গলবার থেকে। এ উপলক্ষে রেলের গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন, রেলওয়ে ভবন, বিভাগীয় রেলওয়ে ভবন আলোকসজ্জায় সজ্জিত থাকবে। রেলওয়ের উন্নয়ন সংক্রান্ত বুকলেট, লিফলেট বিতরণ করা হবে।

এ সেবা সপ্তাহের নানাবিধ কর্মসূচিতে অংশ নেবেন রেলপথ মন্ত্রী মো. মুজিবুল হক এমপি, সচিব মো. মোফাজ্জেল হোসেন ও রেলওয়ের মহাপরিচালক (ডিজি) মো. প্রকৌশলী আমজাদ হোসেন।

এছাড়া সকল গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন ও ভবনসমূহে যেখানে বড় ও ছোট টিভি স্ক্রিন আছে ও যে সকল ট্রেনের বগিতে টিভি স্ক্রিন আছে সে সকল টিভি স্ক্রিনে রেলওয়ের উন্নয়নের ভিডিও তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হবে বলে জানান রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. শরিফুল আলম।

তিনি  বলেন, ট্রেনের ইঞ্জিনে, ছাদে, বাফারে এবং দরজার হ্যান্ডেলে ঝুলন্ত যাত্রীদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণসহ ট্রেনের দায়িত্বরত লোকোমাস্টার, গার্ড, রেলওয়ে পুলিশ এবং রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। ট্রেনে মালামাল বুকিং, বোঝাই, পরিবহন ও গন্তব্য স্টেশনে খালাসে ব্যবসায়ীরা যেন হয়রানির শিকার না হন সে বিষয়ে সজাগ দৃষ্টি রাখাসহ ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।

তবে রেল পূর্বাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলেও এসব কর্মসূচি পালন করা হবে বলেও জানান তিনি।

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, আগামী ২২ মার্চ (বৃহস্পতিবার) বিকাল ৩টায় রেলওয়ের ঢাকায় কর্মরত সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারী, জিআরপি, আরএনবি, ব্যান্ড পার্টি এবং স্কাউট দল আনন্দ শোভাযাত্রায় অংশ নেয়ার জন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট সংলগ্ন এলাকায় জমায়েত হবেন। পরবর্তীতে বিকাল ৪টায় রেলওয়ের উন্নয়ন সংক্রান্ত ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড নিয়ে আনন্দ শোভাযাত্রা সোহরাওয়ার্দী উদ্যান-মৎস ভবন-কদম ফোয়ারা-আব্দুল গণি রোড-জিপিও হয়ে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রবেশ করবে। সকল গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনে যাত্রী সেবায় স্কাউটস সদস্যদের নিয়োগ করা হবে। সকল আন্তঃনগর, মেইল এক্সপ্রেস ও লোকাল ট্রেনের নির্ধারিত রেক এবং সকল কোচের ভিতরের আসন, ফ্যান, পর্দা এবং টয়লেটসমূহ, সকল বিশ্রামাগার ও প্লাটফর্ম পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও হকার মুক্ত রাখার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মহিলা, শিশু, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীসহ অসুস্থ যাত্রীদের স্বাচ্ছন্দময় ভ্রমণ এবং স্টেশনে আরামদায়ক অবস্থা নিশ্চিত করা এবং ট্রেন ও স্টেশনে ফার্স্ট এইড বক্স সকলের দৃষ্টিগোচরে রাখা এবং এর মধ্যে রক্ষিত ওষুধ ও যন্ত্রসমূহ হালনাগাদ রাখার ব্যবস্থা গ্রহণ। যাত্রীদের টিকেট প্রাপ্তির বিষয়টি দ্রুততার সাথে সম্পন্ন করাসহ টিকেট প্রাপ্তিতে যাত্রীরা যেন হয়রানির শিকার না হয় তার প্রতি সার্বক্ষণিক দৃষ্টি রাখা হবে।

Facebook Comments Box