ইসনাইন (সোমবার), ০৪ জুলাই ২০২২

আগুনে শেষ ২১ পরিবারের জীবিকার মাধ্যম

নিউজ ডেস্ক:  বাগেরহাটের শরণখোলায় আগুনে পুড়ে ২১টি দোকান ভস্মীভূত হয়েছে। শুক্রবার (২৭ মে) ভোরে উপজেলার রাজাপুর বাজারে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ব্যবসায়ী, স্থানীয় বাসিন্দা ও ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিটের দুই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। বৈদ্যুতিক গোলযোগের কারণে এই আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. গোলাম সরোয়ার।

এতে অন্তত দেড়কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বল দাবি ব্যবসায়ীদের। এই আগুনে ২১টি পরিবারের জীবিকার মাধ্যমও শেষ হয়ে গেছে বলে জানান তারা।

এদিকে আগুনের খবরে বাগেরহাট-৪ (মোরেলগঞ্জ-শরণখোলা) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলন, শরণখোলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মিলনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ব্যবসায়ীদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন সংসদ সদস্য আমিরুল আলম মিলন।

বাজারের গামের্ন্টস ব্যবসায়ী আরিফুল মোল্লা বলেন, আগুনে আমার সব শেষ হয়ে গেছে। দোকানের ১০ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে।

ব্যবসায়ী জাকির হোসেন বলেন, আমার বিকাশের দোকান ও এক আত্মীয়ের একটি মোবাইলের দোকানে ১৫০টি মোবাইলসহ অন্যান্য মালামাল পুড়ে গেছে। বাজারের সঙ্গে শরণখোলা উপজেলা সদরের যোগাযোগের সড়কে ব্রিজ ভাঙা থাকায় ফায়ার সার্ভিস আসতে দেরী করেছে। যার ফলে আগুনে বেশি দোকান পুড়েছে বলে দাবি করেন এই ব্যবসায়ী।

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক মো. গোলাম সরোয়ার বলেন, আগুনের খবর পেয়েই শরণখোলা ও মোরেলগঞ্জের দুটি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। প্রায় দুই ঘণ্টার চেষ্টায় আমরা আগুন নেভাতে সক্ষম হয়েছি। ব্যবসায়ীদের বক্তব্য অনুযায়ী বৈদ্যুতিক গোলযোগের মাধ্যমে আগুন লেগেছে।

Facebook Comments Box