ছুলাছা (মঙ্গলবার), ০৪ অক্টোবর ২০২২

আইপিএল নিয়ে জুয়া-সংঘর্ষ, নিহত ১

আইপিএল

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) খেলা নিয়ে জুয়াড়িদের লক্ষাধিক টাকার জুয়া বাণিজ্যতে বাধা দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও এলাকাবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে আজিজুল ইসলাম (২৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তবে নিহতের পরিবারের দাবি পুলিশ তাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে।

শনিবার রাতে (১৬ এপ্রিল) রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছ পৌর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আজিজুল ইসলাম হারাগাছ পৌর এলাকার ডেলকোটারি পাড়ার আনিসুর রহমানের ছেলে।

পুলিশ জানায়, রাতে পৌর এলাকার গণি মার্কেটের ভিতরে একটি ক্লাব ঘরে আইপিএল খেলা নিয়ে বেশ কয়েকজন জুয়াড়ি জুয়া খেলায় মেতে উঠে। জুয়া খেলার খবর পেয়ে পুলিশের কয়েকজন সদস্য ক্লাবে হানা দিলে আজিজুলসহ অন্যরা পালিয়ে যাওয়া চেষ্টা করে। এসময় পালাতে গিয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হলে আজিজুল মাটিতে পড়ে যান। পরে অসুস্থ আজিজুলকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে আজিজুল ইসলামের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত এলাকাবাসী হারাগাছ পুলিশ ফাঁড়িতে ভাঙচুর ও সড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ অব্যাহত করতে থাকলে পুলিশের সাথে সংঘর্ষ বেধে যায়। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ও টিয়ার শেল নিক্ষেপ করলে অন্তত ২০ জন আহত হন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুরো হারাগাছ এলাকায় তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে জানা গেছে।

বর্তমানে হারাগাছ পৌর এলাকাসহ পুলিশ ফাঁড়ির আশপাশের এলাকায় ব্যাপক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। বাড়ানো হয়েছে পুলিশি টহল।

তবে নিহত আজিজুল ইসলামের পরিবার ও স্থানীয়দের অভিযোগ, পুলিশ কোনো কিছু না বুঝেই ক্লাবে ঢুকে আইপিএলের খেলা দেখার সময় সেখানে বেধড়ক লাঠি চার্জ করে। সবাই পালালেও আজিজুল পালাতে না পারায় সেখানে পুলিশের লাঠির আঘাতে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবার পুলিশকে দায়ী করেছেন।

এ ব্যাপারে কাউনিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল কাদের জিলানী পুলিশের পিটুনিতে যুবক নিহতের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তিনি বাংলামেইলকে জানান, ক্লাবে পুলিশ গেলে আজিজুল ইসলাম ভয়ে পালানোর সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে স্থানীয়রা তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান তিনি।

Facebook Comments Box