ইসনাইন (সোমবার), ২৭ মে ২০২৪

অর্পিত সম্পত্তি নিয়ে কয়েক লাখ মামলা বাতিল

অর্পিত সম্পত্তি নিয়ে কয়েক লাখ মামলা বাতিল

নিউজ ডেস্ক: অর্পিত সম্পত্তি নিয়ে ২০১২ সালের আগে করা কয়েক লাখ মামলা বাতিল করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে জেলা প্রশাসকরা অর্পিত সম্পত্তি লিজ দিতে পারবেন বলে আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (৮ জুন) বিচারপতি নায়মা হায়দার, সহিদুল করিম ও কুদ্দুস জামানের বেঞ্চ এ রায় দেন।

এদিন অর্পিত সম্পত্তি আইনের ৯, ১৩ ও ১৪ ধারার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিট খারিজ করে দেন হাইকোর্ট। এর ফলে অর্পিত সম্পত্তি নিয়ে সব মামলা এখন থেকে বিশেষ ট্রাইব্যুনালে নিষ্পত্তি হবে। অন্য কোনো আদালতে এ সংক্রান্ত মামলা চলবে না।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাস গুপ্ত সংবাদমাধ্যমকে জানান, ট্রাইব্যুনাল গঠনের আগে দেওয়ানি আদালতে অনিষ্পন্ন চলমান মামলাগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল করা হয়েছে। এ রায়ের ফলে অর্পিত সম্পত্তির মামলা শুধু ট্রাইব্যুনালে চলবে।

১৯৬৫ সালে ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের সময় এ দেশ থেকে অনেকেই পালিয়ে ভারত চলে যান। তাদের সম্পত্তিকে শত্রু সম্পত্তি ঘোষণা করে তৎকালীন সরকার। পরে ১৯৭৪ সালে সেসব সম্পত্তিকে অর্পিত সম্পত্তি করা হয়।

এরপর ২০০১ সালে অর্পিত সম্পত্তি নিয়ে প্রথম আইন হয়, যা কার্যকর হয় ২০১২ সালে। এ আইনের উদ্দেশ্য ছিল প্রকৃত মালিকদের জমি ফেরত দেয়া। কিন্তু এর আগেই অর্পিত সম্পত্তি নিয়ে লাখ লাখ মামলা হয়।

সেই আইনের ৩টি ধারা চ্যালেঞ্জ করে ওই বছর দুটি রিট করা হয়। রিটের চূড়ান্ত শুনানিতে আইনি ব্যাখ্যার প্রয়োজন হলে তিন সদস্যের বৃহত্তর বেঞ্চ গঠন করে দেন প্রধান বিচারপতি। সেই রিটের চূড়ান্ত শুনানিতে হাইকোর্ট ২০১২ সালের আগে হওয়া অর্পিত সম্পত্তির লাখ লাখ মামলা বাতিল করে দিলেন।

আদালত রায়ে বলেন, অর্পিত সম্পত্তি আইনের ৯, ১৩ ও ১৪ ধারা মৌলিক অধিকারের পরিপন্থি নয়। অর্পিত সম্পত্তি জেলা প্রশাসকের অধীন থাকবে এবং জেলা প্রশাসক প্রয়োজনে লিজ দিতে পারবেন।

Facebook Comments Box